“বেনাপোলে গ্রামীন শিল্প ও বানিজ্য মেলা জমে উঠেছে! উপচে পড়ছে ভ্রমন পিপাসু আনন্দ পিপাসু নর- নারী শিশুরর ঢল”

0
397

নিজস্ব প্রতিবেদক, (বেনাপোল): বেনাপোল গ্রামীন শিল্প ও বানিজ্য মেলায় উপচে পড়েছে ভ্রমন পিপাসু আনন্দ পিপাসু নর- নারী শিশু সহ সর্বস্তরেরর মানুষ।

স্বাধীনতার ৪৬ বছরে বেনাপোল তথা শার্শা উপজেলায় মানুষের কাজের ফাঁকে একটু বিনোদনের জন্য এ ধরনের বড় কোন মেলা বা বিনোদন অনুষ্ঠান হয়নি।

যশোর জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও বেনাপোল পৌর মেয়র আশরাফুল আলম লিটনের ও বেনাপোল পৌরসভার সার্বিক সহযোগিতায় যশোর জেলা প্রশাসক গত ৮ জুলাই বেনাপোল বলফিল্ড মাঠে গ্রামীন শিল্প ও বানিজ্য মেলার শুভ উদ্বোধন করেন।

প্রতিদিনি বিকালে বৃষ্টিতে মেলায় লোকজনের উপস্থিতি কম হলে গত দুদিনে উপচে পড়েছে বিনোদন পিপাসু মানুষের ঢল। গ্রামের অনেক বৃদ্ধ মানুষ মেলায় এসে নতুন নতুন জিনিস পত্র দেখে তাদের তাদের ভালো লাগার কথা প্রকাশ করছে।

শার্শার বাহাদুরপুর গ্রামের ইসমাইল হোসেন (৭৫) ও তার স্ত্রী সরলা বিবি (৬৫) মেলায় এসে তাদের ভাললাগার অনুভুতির কথা প্রকাশ করে বলেন,আমরা গ্রামের মানুষ একসাথে এত খাবার দোকান আবার নানা রকম বিনোদন মুলক খেলাধুলা রয়েছে কখনো দেখিনি। আমাদের শেষ বয়সে এসে ভাল লাগছে।

রং বেরংয়ের দোকানে ছোট বড় সবাইকে দেখা গেছে কেনা বেচা করতে। প্রায় শতাধিক দেশী বিদেশী দোকান পাট এ মেলায় ষ্টোল দিয়েছে।

মেলা আয়োজক কমিটির সাধারন সম্পাদক সুকুমার দেবনাথ বলেন, বেনাপোল শিশু কিশোররা মেলায় নাগর দোলা চরকা ঘোরা,শুন্যে নৌকাবাইচ, ভুতেরবাড়ি প্রাইভেট কার, মোটরসাইকেল গ্লোব এর খেলা ধুলা সহ নানান রকম বিনোদন মুলক অনুষ্ঠান উপভোগ করছে। তিনি আরো জানান, বেনাপোলে স্বাধীনতার পর সবচেয়ে বড় বিনোদন মুলক একটি বানিজ্যক মেলার আয়োজন করা হয়েছে বেনাপোল পৌরসভার তরুন মেয়র ও যশোর জেলা প্রশাসক এর প্রচেষ্টায়। তিনি আরো বলেন মেলায় সব ধরনের নিরাপত্তার জন্য এখানে পুলিশ, আনছার, ফায়ারসার্ভিস বিদ্যুত বিভাগ সহযোগিতা করে যাচ্ছে।
প্রতিদিন মেলাকে আকর্ষনীয় করে তোলার জন্য প্রথম পুরস্কার প্রাইভেট কার অথবা মোটরসাইকেল দিয়ে র‌্যাফেল ড্র হয় রাত ১০ টার সময়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here