বেনাপোল কাস্টমসে ঈদের ছুটি বাতিল করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড

0
238

নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর : শুধুমাত্র ঈদের দিন ছুটি বহাল রেখে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত সপ্তাহে সাত দিন সকাল ৮ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত অফিস খোলা রাখার নির্দেশনা জারি করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। এ নিয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারিদের মধ্যে ক্ষোভের সৃস্টি হয়েছে। এমনিতে সরকারি বন্ধের ও সাপ্তাহিক ছুটির দিনে বেনাপোলে কোন কাজ করে না বন্দর ব্যবহারকারী বিভিন্ন সংগঠন। তারপর ছুটি বাতিল করে সরকারের কতটা লাভ হবে এ নিয়ে ব্যবসায়ীদের মনে সংশয় দেখা দিয়েছে।
জানা যায়, পবিত্র রমজানে আমদানি-রফতানি স্বাভাবিক রাখতে বেনাপোল কাস্টমস হাউজ সপ্তাহে সাত দিন খোলা রেখে কাজ করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। রোববার বিকালে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড বেনাপোল কাস্টমস হাউজকে এই নির্দেশনা সংক্রান্ত চিঠি জারী করেন। তবে বন্দর কর্তৃপক্ষের উদ্ধৃতি দিয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড পত্র দিলেও বন্দর কর্তৃপক্ষের খামখেয়ালিপনায় ছুটির দিনে বন্দরের কাউকে পাওয়া যায় না। রাজস্ব বৃদ্ধি ও আমদানি-রফতানি স্বাভাবিক রাখতে সরকারের এ মহৎ উদ্দেশ্য ভেস্তে যাবে বলে দাবি ব্যবসায়ীদের। ঈদের ছুটিতে বন্দর ও কাস্টমস খোলা রেখে কাজকর্ম স্বাভাবিক রাখার নির্দেশনা জারি করায় চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে কাস্টম ও বন্দর কর্মকর্তা কর্মচারীসহ বন্দর ব্যবহারকারী সংগঠনগুলোর মাঝে।
শুধু বন্দর-কাস্টমস খোলা থাকলে খুব একটা লাভ হবে না। সরকারি ছুটিতে সিএন্ডএফ এজেন্টরা বাড়ি চলে যাবে। ব্যাংক, বন্দর বন্ধ থাকবে। ঈদের ৩দিন আগে ও পরে পণ্যবাহী ট্রাক চলাচল বন্ধ থাকবে। ঢাকার আমদানিকারকরা ঈদের ৫দিন আগে ও পরে কোন মাল খালাস করে না। তাদের কর্মচারী লেবাররা ঈদের ছুটিতে দেশের বাড়ি চলে যায়। দেরি করে আসার কারণে তারা মালামাল দেরিতে খালাস করে।
আমদানিকারক ও তাদের প্রতিনিধিরা কাজ না করলে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ অফিস খুলে কি কাজ করবে। তারপরও পবিত্র লাইলাতুল কদরের দিনও অফিস খোলা রাখার নির্দেশ কি ভাবে দিল এটা বোধগম্য নয় বলে জানালেন একজন শুল্ক কর্মকর্তা। তারা বলছেন, পরিবার পরিজনের সাথে ঈদ করার জন্য অগ্রীম বাস ও ট্রেনের টিকিট সংগ্রহ করেছেন। আগাম ছুটির খবরে তারা পরিবার নিয়ে গ্রামের বাড়িতে স্বজনদের সঙ্গে ঈদ উদযাপনের প্রস্তুতি নিলেও এ নির্দেশনায় সব কিছু মাটি হয়ে গেল।
বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্টস এসোসিয়েশনের সাধারন সম্পাদক এমদাদুল হক লতা বলেন, সরকারি নির্দেশ অমান্য করে কি কারণে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড ছুটি বাতিল করে মাত্র এক দিন (ঈদের দিন) ছুটি রাখলো এটা আমাদের বোধগম্য নয়। এছাড়াও ঈদের আগের তিন দিন ও পরের তিনদিন মহাসড়কে ট্রাক চলাচল বন্ধ থাকবে। সেক্ষেত্রে বন্দর থেকে মাল নিয়ে কোথায় রাখবো। অনেক সিএন্ডএফ মালিক কর্মচারীরা প্রতিবছর ঈদের ছুটিতে দেশে যায়। বন্দর ব্যাংক ছুটি থাকে। এভাবে ছুটি বাতিল করে অফিস খোলা রাখলে কোন কাজ করবে না সিএন্ডএফ এজেন্টরা। ফলে রাজস্ব বোর্ড ঈদের ছুটি বাতিল করে কাজ কর্ম চালু রাখার বিষয়টি খুব একটা ফলপ্রসু হবে না বলে তিনি জানান।
বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্টস এসোসিয়েশনের সভাপতি মফিজুর রহমান সজন বলেন, সরকারি ছুটির তালিকা আগেই সবাইকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। ভারত সিএন্ডএফ ব্যবসায়ীরা বিষয়টি জানে। নতুন করে ছুটি বাতিল করে অফিস করায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ড কতটুকু লাভবান হবে সেটা জানি না। তিনি আরো জানান, বন্ধের দিন পোর্ট কর্তৃপক্ষ হলিডে ও অভারটাইম চার্জ আদায় করায় আমদানিকারকরা ছুটির দিনে পণ্য খালাসে অনীহা প্রকাশ করেন।
বেনাপোল কাস্টম কমিশনার মোঃ শওকাত হোসেন রাজস্ব বোর্ড থেকে ছুটি বাতিলের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এ সময় আমদানি-রফতানি বাণিজ্য সচল রাখতে সংশ্লিষ্টরা অফিস করবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here