বেনাপোল চেকপোষ্ট কাষ্টমসে এখন দালাল মুক্ত। রাজস্ব আয় বৃদ্ধি

0
33

আশানুর রহমান আশা, বেনাপোল : স্থলবন্দর বেনাপোল চেকপোষ্ট এখন দালাল মুক্ত।সরকারী রাজস্ব আয় বৃদ্ধি পেয়েছে। যার ফলে এ পথে দিনদিন যাত্রীর সংখ্যা বহুগুনে বেড়েছে।কাষ্টমস সুপার আলমগীর হোসেন ও মো:শফিকুল ইসলাম যোগদানের সাথে সাথেই কাস্টমসের সুন্দর স্বচ্ছপরিবেশ ফিরে এসেছে।তার নির্দেশনায় কাষ্টমস ইন্সপেক্টর আমিনুর রহমান,জাকির হোসেন, সাহিদা বেগম, এম এস মেজবাহ হাসান,সহ অন্যান্য কাষ্টমস সদস্যগন কঠোর পরিশ্রমে যাত্রী সেবাদানে কাজ করে যাচ্ছেন।
পাসপোর্ট যাত্রীরা যাতে নিয়ম শৃংখলা ও সারীবদ্ধ ভাবে যেতে পারে তার জন্য নিয়োজিত রয়েছে কাষ্টমস কন্সটেবল ও আনসার সদস্যরা।তারা সকাল থেকে সন্ধা অবধি নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন বলে সরেজমিনে লক্ষ্য করা গেছে।

এদিকে কাষ্টমস অভ্যন্তরে পরিবেশ সুন্দর স্বচ্ছ থাকায় যাত্রীরা তাদের ব্যবহার যোগ্য পন্যসামগ্রী নি: সন্দেহ ভারত থেকে আনতে পারছে।ফলে প্রত্যেকদিন যাত্রীর সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।প্রত্যেকদিন ২ হাজার থেকে ৩ হাজার পাসপোর্ট যাত্রী ভারতে এ পথে গমন করছে।যার কারনে প্রত্যেক দিন এ পথেই সরকারী রাজস্ব আয় হচ্ছে ১০ থেকে ১৫ লক্ষ টাকা।
এ বিষয়ে বেনাপোল কাষ্টমস যুগ্ম কমিশনার আ:রশীদ ভূঁইয়া বলেন,আমার অক্লান্ত প্রচেষ্টায় কাষ্টমসের পরিবেশ ফিরে আনতে পেরেছি বলে সরকারী রাজস্ব দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং যাত্রীরা যাতে কোন রকম হয়রানীর শিকার না হয় তার জন্য সব বিষয়ে আমি দিক নির্দেশনা প্রদান করেছি।আর বহিরাগতদের ঠেকাতে সার্বক্ষনিক আনসার সদস্য নিয়োগ করেছি। তবে স্বচ্ছতা ফিরিয়ে আনাতে স্থানীয় সচেতন মহল ও আপনাদের সহযোগিতা ছিল বলে মনে করি।
চেকপোষ্ট কাষ্টমস সুপারদ্বয় বলেন,আমরা যুগ্মকমিশনার স্যারের নির্দেশনা পালন করতে বদ্ধপরিকর।যাতে আরো উত্তোরোত্তর পাসপোর্ট যাত্রী সংখ্যা বৃদ্ধি পায় তার সব ব্যবস্থাই আমরা করবো।