বেনাপোল পুলিশ ইমিগ্রেশন চেকপোষ্টের অফিসার ইনচার্জ ইকবাল মাহমুদ ক্লোজড

0
338

কথিত দালাল আবুল কালাম জামিনে মুক্ত পাসপোর্ট যাত্রীদের হয়রানী এখন নাই
এম আর রকি: দেশের স্থল বন্দর বেনাপোল ইমিগ্রেশন চেকপোষ্টের অফিসার ইনচার্জ ইকবাল মাহমুদকে বুধবার সকালে ক্লোজড করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বহুবিধ অভিযোগের প্রেক্ষিতে জনস্বার্থে প্রত্যাহার করা হয়েছে বলে সূত্রগুলো দাবি করেছে। পাশাপাশি ইমিগ্রেশনে কথিত দালাল নামে খ্যাত আবুল কালাম আদালত থেকে জামিনে বেরিয়ে বাড়িতে গেছে। বুধবার সকাল থেকে ইমিগ্রেশন চেকপোষ্টের অবস্থা সম্পূর্ন পাল্টে যায়। তবে বদলী হয়ে যাওয়া এসআই,এএসআই ও কনস্টেবল পড়েন হতাশায়। পাসপোর্ট যাত্রীদের হয়রানী মুক্ত ইমিগ্রেশন চেকপোষ্টে এখন কড়াকড়ি আরোপ বলবত রয়েছে।
স্থানীয় সাংবাদিকরা বেনাপোল পুলিশ ইমিগ্রেশন সূত্রের বরাত দিয়ে নিশ্চিত করেছেন,অফিসার ইনচার্জ ইকবাল মাহমুদকে বুধবার সকাল থেকে প্রত্যাহার করা হয়। এদিকে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান,ইমিগ্রেশন চেকপোষ্টে র্দীঘ কয়েক যুগের রাম রাজত্ব কায়েম করা কথিত দালাল আবুল কালাম পুলিশের ফাক ফোকর দিয়ে বুধবার আদালত থেকে জামিনে মুক্তি পেয়ে বাড়িতে উঠেছে। সে সাতক্ষীরা জেলার কলারোয়া উপজেলার ধানতাড়া গ্রামের বাসিন্দা। সে বেনাপোল ইমিগ্রেশন চেকপোষ্টে তিন যুগের অধিক সময় দায়িত্ব পালনকারী অফিসার ইনচার্জের অনুগত হয়ে কয়েক কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে এখন সে কোটিপতি বনে গেছেন। সূত্রগুলো জানিয়েছেন, অফিসার ইনচার্জ ইকবাল মাহমুদের নির্দেশ কথিত দালাল আবুল কালাম ইমিগ্রেশন চেকপোষ্টে সরকারী কর্মচারী ও সাধারণ ব্যক্তিদের ভয়ভীতি দেখিয়ে পাসপোর্ট আটকে রেখে প্রতিদিন হাজার টাকা উপার্জন করে বাড়িতে ফিরেছে। অফিসার ইনচার্জের আনুগত হওয়ায় ইমিগ্রেশনে দায়িত্বপালনকারী এসআই,এএসআই ও পুলিশ কনস্টেবল আবুল কালামকে কিছু বলতে সাহস পার্যন্ত পাননি। আবুল কালামের অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে পারেনি। মঙ্গলবার বেনাপোল পোর্ট থানার অভিযানে দালাল আবুল কালাম আটকের পর ইমিগ্রেশন চেকপোষ্ট এলাকায় স্বস্তি ফিরে আসে। দালাল ও ঝামেলা মুক্ত ইমিগ্রেশন হওয়ায় পাসপোর্ট যাত্রীদের ভোগান্তি দূর হয়ে যায়। বুধবার সকাল থেকে ইমিগ্রেশন চেকপোষ্টে দালালের ছায়া কেউ দেখতে পারেনি। তবে পাসপোর্ট যাত্রীরা অনায়াসে পুলিশ ইমিগ্রেশন চেকপোষ্ট অতিক্রম করেছে। অপর একটি সূত্র বলেছে, মঙ্গলবার সকাল থেকে ইমিগ্রেশন চেকপোষ্ট দালাল মুক্ত ও পাসপোর্ট টানাটানী মুক্ত হলেও এই দপ্তরে কর্মরত কতিপয় কর্মকর্তা এবং সদস্যদের প্রতিদিনের বড় একটি অংশ আয় বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তাদের মধ্যে হতাশা নেমে আসে। সূত্রগুলো জানিয়েছেন, পাসপোর্ট যাত্রীদের টানাটানী বন্ধ থাকা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। বুধবার সকাল থেকে বেনাপোল ইমিগ্রেশন চেকপোষ্টে ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ হিসেবে এসআই ফজলুল হক দায়িত্ব পালন করছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here