“বেনাপোল-পেট্টাপোল বন্দরে ধর্মঘট প্রত্যাহার”

0
489

আরিফুজ্জামান আরিফ : বেনাপোল বন্দরে আগ্নেয়াস্ত্র ও গুলি জব্দের ঘটনায় ভারতীয় পণ্যবাহী একটি ট্রাক আটকের প্রতিবাদে ভারতীয় ব্যবসায়ীদের ডাকা ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হয়েছে।

শনিবার (০২ ডিসেম্বর) বিকালে বেনাপোল বন্দরে বেনাপোল ও পেট্রাপোলের কাস্টমস, বন্দর এবং বন্দর ব্যবহারকারী সংগঠনের নেতাদের সমঝোতামূলক বৈঠকে এ ধর্মঘট তুলে নেওয়া হয় এবং আটক ট্রাকটি হস্তান্তর করা হয়।

বৈঠকে ও ট্রাক হস্তান্তরের সময় উপস্থিত ছিলেন- বেনাপোল স্থলবন্দরের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ট্রাফিক) আমিনুল ইসলাম, কাস্টমস হাউজের সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা আব্দুল আল মামুন, বাংলাদেশ স্থলবন্দর এমপ্লোয়েজ ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মনির মজুমদার, বেনাপোল চেকপোস্ট আইসিপি ক্যাম্পের নায়েব সুবেদার হারাধন প্রমুখ।

ভারতের পেট্রাপোল বন্দরের পক্ষে পাঁচ সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে ছিলেন পেট্রাপোল সিঅ্যান্ডএফ স্টাফ অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কার্তিক চন্দ্র।

বেনাপোল স্থলবন্দরের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক (ট্রাফিক) আমিনুল ইসলাম জানান, একটি অঙ্গীকারনামা নিয়ে ট্রাকটি ভারতে হস্তান্তর করা হয়েছে। তারা ধর্মঘট তুলে নিয়েছেন। শনিবার সরকারি ছুটি থাকায় এবং সিঅ্যান্ডএফ ব্যবসায়ীরা কাজ না করার কারণে পণ্য আমদানি-রফতানি হচ্ছে না।

রোববার (০৩ ডিসেম্বর) সকাল থেকে স্বাভাবিক নিয়মে বন্দরের বাণিজ্যিক কার্যক্রম চলবে বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য গত ৮ নভেম্বর রাতে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্যরা বেনাপোল বন্দরের ভারতীয় ট্রাক টার্মিনালে একটি ভারতীয় ট্রাক (wb-23c- 0373) থেকে বিদেশি ওয়ান শ্যুটার গান ও দুই রাউন্ড গুলি পায়। এ ঘটনায় মামলা ও ট্রাক জব্দ করে। ওই ট্রাক অন্যায় ভাবে আটক করা হয়েছে দাবি করে ভারতীয় ব্যবসায়ীরা বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) বিকাল সাড়ে ৩টা থেকে ভারতের পেট্রাপোল বন্দরের ৫টি ব্যবসায়ী সংগঠন এ কর্মবিরতির ডাক দেয়।

এতে আমদানি-রফতানি কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়।
তবে এ সময় আমদানি-রফতানি বাণিজ্য বন্ধ থাকলেও দুই দেশের মধ্যে পাসপোর্ট যাত্রী চলাচল স্বাভাবিক ছিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here