“বেনাপোল বন্দরে এই প্রথম আমদানি করা হলো মহিষের একটি চালান”

0
225

আরিফুজ্জামান আরিফ।।বেনাপোল বন্দর দিয়ে এই প্রথম আমদানি করা হলো ১০০টি মহিষের একটি চালান।

বুধবার বিকেল সাড়ে ৬টার দিকে ৬টি ট্রাকে ছোট বড় ১০০টি মহিষ আসে ভারতের পেট্রাপোল বন্দর হয়ে বেনাপোল বন্দরে।
মহিষগুলো হরিয়ানা থেকে আমদানি করা হয়েছে।

কাস্টমস ও বন্দর সূত্রে জানা গেছে, সিরাজগন্জের মিল্কভিটা কোম্পানী দুধ উৎপাদনের জন্য ৫০টি মহিষ ও ৫০টি মহিষের বাছুর (প্রজনন) আমদানির জন্য দরপত্র দিলে ঢাকার আমদানিকারক জেনটিক্স ইন্টারন্যাশনাল এই মহিষগুলো ভারত থেকে আমদানি করেন (যার বিসিপি নং-১০৫৭/৬)। ভারতের রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান হলো জে কে এন্টারপ্রাইজ।

বেনাপোলের হটলাইন কার্গো ইন্টারন্যাশনাল নামের একটি সিএন্ডএফ এজেন্ট আমদানিকৃত মহিষগুলো বেনাপোল কাস্টমস হাউজ থেকে ছাড় নেওয়ার জন্য বিল অব এন্ট্রি দাখিল করে। (বিল অব এন্ট্রি নং-৩১৯১৮ তারিখ-০৯/০৫/১৮)। মহিষের আমদানি মূল্য ঘোষনা দেয়া হয়েছে ৮২ হাজার ২শ‘ ২৫ মার্কিন ডলার।

যার বাংলাদেশী টাকায় মূল্য দাঁড়ায় ৬৮ লাখ ৬৫ হাজার ৭শ ৮৭ টাকা। এই মহিষের কোন আমদানি শুল্ক নেই। তবে প্রাণী সম্পদ বিভাগের ছাড়পত্র নিতে হবে।

শার্শা উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা জয়দেব কুমার সিংহ জানান, মহিষগুলো সিরাজগন্জের মিল্ক ভিটায় নিয়ে যাওয়া হবে। প্রাথমিক ভাবে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে মহিষগুলো ভাল পাওয়া গেছে। প্রাণী সম্পদ বিভাগের সরকারি শুল্ক আদায় করে যথাযথ ভাবে ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।

বেনাপোল চেকপোস্ট কাস্টমস কার্গো শাখার রাজস্ব কর্মকর্তা হারুন আর রশিদ ১০০ মহিষ আমদানির সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মহিষগুলো বেনাপোল কাস্টমস হাউজ থেকে খালাস নিতে হটলাইন কার্গো ইন্টারন্যাশনাল নামের একটি সিএন্ডএফ এজেন্ট প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দাখিল করেছে। তা পরীক্ষা নিরীক্ষা করে শুল্কায়ন করার পর খালাস দেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here