বেনাপোল স্থলপথে পুর্বের তুলনায় পাসপোর্ট যাত্রী সংখ্যা বৃদ্ধি : রাজস্ব বেড়েছে

0
354

আশানুর রহমান আশা, বেনাপোল (যশোর) : বেনাপোল চেকপোষ্টে ইমিগ্রেশান- কাস্টমস অফিসে দালাল মুক্ত পরিবেশে বৈধ পাসপোর্ট যাত্রীরা শান্তি শৃঙ্খলাভাবে নির্বিঘ্নে যাতায়াত করছে। যাত্রীর সংখ্যা পুর্বের তুলনায় বৃদ্ধি পেয়েছে। ইতি পুর্বে এইপথে যাত্রী চলাচল করত ১৪শ থেকে ১৫শ পাসপোর্ট যাত্রী। বর্তমানে প্রতিদিন এই স্থলপথে ৩ থেকে ৪ হাজার যাত্রী চলাচল করছে। ফলে পুর্বের তুলনায় এই পথে রাজস্ব বৃদ্ধি পেয়েছে।

বেনাপোল চেকপোষ্ট পুলিশ ইমিগ্রেশনে ওসি ওমর শরীফ জানান, প্রতিদিন বেনাপোল স্থলপথে ৩ থেকে ৪ হাজার যাত্রী চলাচল করছে। ফলে এই খাত থেকে সরকারী রাজস্ব আয় বেড়েছে। তিনি বলেন গত মার্চ মাসে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে পাসপোর্ট যাত্রী চলাচলের সংখ্যা ১ লক্ষ ২০ হাজার ৮৭২ জন। এ খ্যাত থেকে সরকার রাজস্ব আয় হয়েছে ৩কোটি ২ লক্ষ ১৮ হাজার টাকা । একই সাথে গত এপ্রিল মাসে পাসপোর্ট যাত্রীর যাতায়াতের সংখ্যা ছিল ১ লক্ষ ২৫ হাজার ৯৩৬ জন। এ সময় সরকারের রাজস্ব আদায় হয়েছে ৩কোটি ১৫ লক্ষ ৩৪ হাজার টাকা। তিনি আরও বলেন, পুর্বের তুলনায় পাসপোর্ট যাত্রীদের সেবার মান বৃদ্ধি, যাত্রী হয়রানি, দালাল মুক্ত পরিবেশের কারণে পাসপোর্ট যাত্রীর সংখ্যা বৃদ্ধি এবং সরকারের রাজস্ব আয় বৃদ্ধি পেয়েছে। পাসপোর্ট যাত্রীদের যাতায়াতের সুবিধার্থে ৪টি ডেস্ক থেকে ৮টিডেস্ক অর্থাৎ বহির্গমন ৮টি ্ও আগমন ৮ টি মোট ১৬ টি ডেস্কে পরিনত করা হয়েছে। ফলে পাসেপোর্ট যাত্রীরা সারিবদ্ধভাবে তাদের পাসেপোর্টের কাজ সহজে সারতে পারছে। ওসি ওমর শরীফ আরও বলেন, এই রাজস্ব আদায় এবং যাত্রী সেবার মানের সাফল্য শুধু আমার একা নয়। যাত্রি সেবায় নিয়োজিত রয়েছেন দারোগা আনিসুর রহমান,হোসেন আলী, সাইফুল, রব্ওিল পলাশ, সুব্রত,হেলাল, আসাদ,হাসান, শহিদুল,লিহাজ প্রমুখ। আর কনস্টাবলরা সার্বক্ষনিক প্রাচীরের চারপাশে কঠিন পাহারায় কর্মরত রয়েছেন যাতে পাসপোর্ট যাত্রি ছাড়া বহিরাগতরা প্রবেশ করতে না পারে।বেনাপোল চেকপোষ্টে দায়িত্বে নিয়োজিত কাষ্টমস কাস্টমস সুপারেনটেন্ট শাহাজান ও তাহমিদ বলেন , বর্তমানে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে যাতায়াতকারী পাসপোর্ট যাত্রীদের সেবার মান বাড়ানোর জন্যে কাস্টমস ও ইমিগ্রেশনের অফিসের বিভিন্ন কক্ষে ১৬টি সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। যাতে কোন পাসপোর্ট যাত্রী হয়রানি না হয়। এছাড়া বেনাপোল চেকপোস্টে ২টি স্ক্যানিং মেশিন স্থাপন করা হয়েছে । ফলে মেশিন ২টি স্থাপন করায় পাসপোর্ট যাত্রীদের ব্যাগেজ তল্লাশি দ্রুত হচ্ছে। পাসপোর্ট যাত্রীদের কাস্টমসের কাজ দ্রুত সম্পন্ন করার জন্য এখানে নিয়োজিত রয়েছেন কাস্টমস ইনেন্সপেক্টর মোশারেফ হোসেন, শফিকুল ইসলাম, জহুরুল ইসলাম, প্রিয়াংকা সহ ১১ জন কাস্টমস কর্মকর্তাদের সহযোগিতায় রাজস্ব আদায় ও যাত্রী সেবার মান বৃদ্ধি পেয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here