বৈধ পথে স্বর্ণ আমদানির লক্ষ্যে নীতিমালা তৈরির প্রক্রিয়া শুরু

0
266

নিজস্ব প্রতিবেদক : বৈধ পথে স্বর্ণ আমদানির প্রক্রিয়াকে আরো সহজ করার লক্ষ্যে স্বর্ণ আমদানি নীতিমালা তৈরির উদ্যোগ শুরু হয়েছে। এ লক্ষ্যে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস) শিগগিরই নতুন স্বর্ণ নীতিমালার খসড়া পাঠাবে। তা হালনাগাদ করার ক্ষেত্রে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর উদ্যোগ গ্রহণ করবে। সম্প্রতি শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগ ও বাজুসের মধ্যে এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়েছে। শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. মইনুল খানের সভাপতিত্বে ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বাজুসের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার আগরওয়ালাসহ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। গত ২২ মে রাজধানীর কাকরাইলের আইডিইবি ভবনে অবস্থিত শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগে ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

ওই বৈঠকে স্বর্ণ আমদানির প্রক্রিয়াকে সহজ করার বিষয়েও আলোচনা হয়। বাজুসের নেতৃবৃন্দ জানান, দেশে স্বর্ণের সহজলভ্যতার জন্য আমদানিবান্ধব নীতিমালা অনুপস্থিত। তাই ব্যবসায়ীরা অবৈধ পথে স্বর্ণ সংগ্রহে ঝুঁকে পড়েছেন। বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, ব্যবসায়ীরা একক বা যৌথভাবে স্বর্ণ আমদানির লক্ষ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকে সরাসরি আবেদন করলে দ্রুত অনুমতি পাওয়ার ক্ষেত্রে শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগের পক্ষ থেকে সহযোগিতা করা হবে। এ সময় সাম্প্রতিক আপন জুয়েলার্সের কয়েকটি দোকানে শুল্ক গোয়েন্দা বিভাগের অভিযান ও এর পরবর্তীতে অন্যান্য স্বর্ণের দোকানেও অভিযানের খবরে ব্যবসায়ীদের মধ্যে উদ্বেগের বিষয়টি আলোচনায় উঠে আসে। বাজুস এর সহ-সভাপতি এম এ হান্নান আজাদ বলেন, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে অভিযান পরিচালনার খবরে ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতঙ্ক তৈরি হয়েছে। তবে ড. মইনুল খান বলেন, আপন জুয়েলার্সে সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করা হয়। সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ছাড়া স্বর্ণের দোকানে ঢালাও অভিযান পরিচালনা না করারর বিষয়ে আশ্বস্ত করেন তিনি। এছাড়া রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্তকৃত স্বর্ণ দ্রুত নিলামের লক্ষ্যে বাংলাদেশ ব্যাংককে অনুরোধ করারও সিদ্ধান্ত হয় বৈঠকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here