মনিরামপুরে চুরির অভিযোগে যুবককে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় তিনজন আটক

0
235

বিশেষ প্রতিনিধি: ‍মনিরামপুরে চোর সন্দেহে রবিউল ইসলাম (৩৫) নামে এক যুবককে পিটিয়ে হত্যার ঘটনার প্রায় ৮ মাস পর সন্দেহভাজন তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নিহত রবিউল উপজেলার বালিদা পাঁচাকড়ি গ্রামের লেয়াকত সরদারের ছেলে। তিনি খুলনা জেলার ফুলতলার সুপার জুটমিলের শ্রমিক ছিলেন।
সোমবার গভীর রাতে মনিরামপুর থানা পুলিশ উপজেলার মাহমুদকাটি গ্রামের নূরুজ্জামানের ছেলে আব্দুল মান্নান (৪০), লুৎফর হোসেনের ছেলে মাসুম বিল্লাহ (৪০) ও মশিয়ারের ছেলে আব্দুল কুদ্দুসকে (২৮) গ্রেফতার করে।
মামলার নতুন তদন্তকারী কর্মকর্তা মনিরামপুর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) ইনামুল হক সাংবাদিকদের জানান, যেহেতু গণপিটুনিতে লোকটি মারা গেছে এবং ঘটনার সময় অনেক লোক সেখানে ছিল, তাই প্রকৃতপক্ষে কারা জড়িত সেটা তদন্ত করতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনজনকে থানায় আনা হয়েছে। এই তিনজন আসামি হচ্ছেন কি না তা এখনই বলা যাচ্ছে না।
উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে উপজেলার মাহমুদকাটি মধ্যপাড়া গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের দোকানের শাটার কেটে চুরির চেষ্টাকালে গণপিটুনিতে নিহত হন রবিউল। ওইদিন রাতেই রবিউলের বাবা লিয়াকত ছেলেকে হত্যার বিচার চাইতে মনিরামপুর থানায় মামলা করতে এলে তৎকালীন ওসি বিপ্লব কুমার নাথ তার মামলা গ্রহণ করেননি। উল্টো রবিউলের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মালামাল চুরির অভিযোগ এনে দোকান মালিক আব্দুল কুদ্দুসের কাছ থেকে মামলা নেন। এরপর কয়েকদিন থানায় ঘোরাঘুরি করেও মামলা করতে না পেরে অবশেষে ১০-১২ জনের নাম উল্লেখ করে আদালতে পিটিশন করেন তিনি।
ওই মামলার তদন্তভার পড়ে থানার তৎকালীন ইন্সপেক্টর (তদন্ত) শ্যামলাল নাথের উপর। তিনি কয়েকবার তদন্ত করেও তখন কাউকে আটক করতে পারেননি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here