মনিরামপুরে ব্যস্ত সময় পার করছেন লেপ-তোষকের কারিগররা

0
432

উত্তম চক্তবর্তী : শীতের তীব্রতা যতই বাড়ছে যশোরের মনিরামপুর উপজেলার রাজগঞ্জ বাজারে লেপ-তোষকের কারিগররা ততটায় ব্যস্থ হয়ে পড়ছে। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত বিরামহীনভাবে শীত নিবারনের জন্য গরম লেপ-তোষক তৈরীতে ব্যস্থ সময় পার করছে। অর্ডার অনুযায়ী ও তুলার উপর নির্ভর করে বিভিন্ন রকমের লেপ তোষক তৈরী করছে কারিগররা।
সরেজমিনে জানা যায়,বাজারের কারিগরদের তৈরী লেপের কদর দেশের প্রায় প্রত্যেক অঞ্চলে রয়েছে। শীত মৌসুমের শুরুর প্রায় ২ মাস আগে থেকে এখানকার লেপ-তোষক তৈরীর কারিগররা ব্যস্থ সময় পার করছে। জেলা শহরের চাহিদা মিটেয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে এগুলো সরবরাহ করা হয়।
স্থানীয় বাজারের বেশ কয়েকজন কারিগর জানায়, তুলার উপর নির্ভর করে লেপ-তোষক তৈরী করা হয়। তবে সাধারন ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে রেখে এগুলো প্রস্তুত করা হয়ে। ৭শ থেকে ৪ হাজার টাকার মুল্যের লেপ-তোষক গুলো বেশী বিক্রি হয় সাথে অর্ডার গুলোও বেশী হয়। তবে গরীব ও দুঃস্থদের কথা বিবেচনায় রেখে এগুলো বেশী তৈরী করা হয়। তবে শীতের তীব্রতা বাড়ার সাথে সাথে কর্মব্যস্থতাও বেড়েছে।
রাতদিন এগুলো তৈরীতে কাজ করে যাচ্ছে ধুনকাররা। রাজগঞ্জ বাজারের মেসার্স রাজ বেডিং হাউজ এর মালিক রাসেল আহম্মেদ তপু জানান, শীতের শুরুতে লেপ-তোষকের চাহিদা তুলনামুলক কম থাকলেও শীতের তীব্রতা বাড়ায় এগুলো বিক্রির চাহিদাও বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিভিন্ন দামের রকমারী কভারের তৈরী সাথে সাথে তুলোর তার তাম্যের ভিত্তিতে দাম হয়ে থাকে। তবে মধ্য বিত্ত শ্রেণীর মানুষেরা বেশী এগুলো কেনাকাটা করছে বলে জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here