মনিরামপুর উপজেলায় ৪৬টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দপ্তরী কাম প্রহরী নিয়োগে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ

0
351

ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি: যশোরের মনিরামপুর উপজেলায় ৪৬টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দপ্তরী কাম প্রহরী নিয়োগে ব্যাপক দূর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় নিয়োগ প্রত্যাশী ভূক্তভোগীরা তীব্র ক্ষোভে ফুঁসে উঠেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে তারা ঝিকরগাছা প্রেসক্লাবে এসে অস্বচ্ছ নিয়োগ প্রক্রিয়া বাতিলের দাবি জানিয়েছেন। অনিয়ম কারচুপির মাধ্যমে নিয়োগ প্রক্রিয়া জায়েজ করা লক্ষে নিয়োগ কমিটির সভাপতি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ অতুল মান্ডল ও সদস্য সচিব উপজেলা শিক্ষা অফিসার আশিষ কুমার নন্দীর বিরুদ্ধে এই অভিযোগ তুলেছেন এলাকাবাসী। অভিযোগ উপজেলার কাশিমপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে উক্ত পদে নিয়োগ প্রত্যাশী আব্দুস সাত্তারের ছেলে রাসেল হোসেনর নিকট থেকে ৯ লাখ টাকার বিনিময়ে নিয়োগ প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছেন। তাদের অভিযোগ উপজেলা নির্বাহী অফিসার অন্যত্র বদলি হওয়ার আগে তড়িঘড়ি করে এই নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা চেষ্টা করেছেন। উপজেলার রোহিতা ইউনিয়নের কাশিমপুর গ্রামের বসিন্দা আব্দুল আজিজ স্বাক্ষরিত এলাকাবাসির পক্ষে জেলা প্রথমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগে বলা হয় গত ২২ জুন ২০১৭ ইং তারিখে উক্ত পদে নিয়োগের জন্য পরিপত্র জারি করা হয়। ওই পরিপত্রের মাধ্যমে আবেদনের শেষ তারিখ, যাচাই-বাছাইয়ের তারিখ ও নিয়োগ পরিক্ষার ফল প্রকাশসহ নিয়োগপত্র প্রদানের তারিখ ও অন্যান্য নিদ্দেশনা জারি করেন নিয়োগ কমিটি। কিন্তু পরের দিন অর্থাৎ ৭ জুন ’’শুক্রবার সরকারী ছুটির দিনে রহস্যজনকভাবে প্রতিটি স্কুলের প্রধান শিক্ষক মারফত নিয়োগ প্রত্যাশীদের নিকট ইন্টারভিউকার্ড বিতরন করা হয়। কিন্তু, ইন্টারভিউকার্ডে কর্মকর্তাদের স্বাক্ষর থাকলেও পত্র ইস্যুর কোন তারিখ উল্লেখ নাই’’। লিখিত অভিযোগে আরও বলা হয়, নিয়োগ প্রক্রিয়ার সকল পরিপত্রের চিত্র ও নিয়োগের কার্যক্রম তড়িঘড়ি করে সম্পন্ন করেন এবং সরকারী নিয়োগ বিধি উপেক্ষা করে ব্যাপক দূর্নীতি অনিয়মের আশ্রয় নেয়া হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পত্রেরসাথে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ও যাবতীয় শর্তাবলির কপি সংযুক্ত করা হয়েছে। যার স্বারক নং-উশিঅ/মণি/যশোর/২০১৭/২০২১,তাং-২২/০৬/২০১৭ খ্রিঃ। অভিযোগের অনুলিপি সচিব, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রনালয় ঢাকা, মহাপরিচালক, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা অধিদপ্তর মিরপুর-২ ঢাকা, জেলা প্রশাসক যশোর, পরিচালক দূর্নীতিদমন কমিশন (দুদক) যশোর বরাবর প্রেরণ করা হয়েছে। অভিযোগকারীদের মধ্যে এসময় উপস্থিত ছিলেন, আব্দুল আজিজ, মমিনুল হাসান মন্টু, হারুণ অর রশীদ, লিয়াকত হোসেন, ইউপি সদস্য আমিনুল হাসান শিল্পী প্রমূখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here