মহান স্বাধীনতা দিবস উৎযাপনে অস্বকৃতি ঝিকরগাছায় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধার গুরুতর অভিযোগ

0
229

ঝিকরগাছা (যশোর) প্রতিনিধি : ঝিকরগাছায় মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করতে অস্বীকার করায় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে এক মুক্তিযোদ্ধা লিখিত অভিযোগ করেছেন। গত ১৯ মার্চ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগে এই বীর মুক্তিযোদ্ধা ও পিটিআই কমিটির সভাপতি ইয়াকুব আলী প্রধান শিক্ষক সামছুর রহমানের বিরুদ্ধে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন না করা ও উৎকোচ গ্রহনের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের নিকট নোটগাইড বই বিক্রির অভিযোগ তুলেছেন। অভিযোগের অনুলিপি উপজেলা শিক্ষা অফিসার ও স্থানীয় প্রেসক্লাব বরাবর প্রেরণ করা হয়েছে। এর আগে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিদ্যালয় পরিচালনা পর্য়দসহ স্থানীয়রা বিভিন্ন দূর্নীতি, অনিয়ম, অবস্থাপনা, স্বেচ্ছাচারিতাসহ নারী কেলেংকারীর মত গুরুতর অভিযোগ সাংবাদিকদের কাছে তুলে ধরেন স্থানীয় এলাকাবাসীসহ সচেতনমহল। যা ইতোপূর্বে পত্রপত্রিকায় ফলাও করে প্রকাশিত হয়। বীর মুক্তিযোদ্ধা ও পিটিআই কমিটির সভাপতি ইয়াকুব আলী তার লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেছেন, পদ্মপুকুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সামছুর রহমানকে আগামী ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপনে আগাম প্রস্তুতি গ্রহণ করার অনুরোধ করলে ওই শিক্ষক তা আপত্তিকর মন্তব্যসহ ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন। এছাড়া তিনি আশারআলোসহ বিভিন্ন কোম্পানীর নিকট থেকে মোটা অংকের টাকা উৎকোচ নিয়ে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের নোটবই ও গাইড কিনতে চাপ সৃষ্টি করার কারণ জানতে চাইলে প্রধান শিক্ষক এই বীর মুক্তিযোদ্ধার সাথে অসৌজন্যমূলক আচরন করেন বলে সাংবাদিকদের কাছে ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি। এসময় বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ইসমাইল হোসেন তার সাথে ছিলেন। উল্লেখ্য, প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রতিষ্ঠানের বেশ কয়েকটি মূল্যবান মেহগনি গাছ বিক্রি করে অর্থআত্মসাতসহ নারী কেলেংকারীতে জড়িয়ে পড়ারমত জঘণ্য অনৈতিক ঘটনা পদ্মপুকুর গ্রামবাসির মাঝে প্রকাশ পায়। এসব অর্থআত্মসাত ও নারী কেলেংকারী থেকে রক্ষা পেতে তিনি মোটা অংকের টাকার বিনিময় স্থানীয় প্রভাবশালী মহলকে ম্যানেজ করতে সক্ষম হন। এব্যাপারে অভিযুক্ত শিক্ষক সামছুর রহমানের প্রতিক্রিয়া জানতে তার ০১৭২৯৯৫৩৫৩৪ যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিফ করেননি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here