মহামারিতেও লাখো মানুষ লাখপতি!

0
198

সারাবিশ্বে মোট সম্পদের পরিমাণ গেল বছর প্রায় সাড়ে ৭ শতাংশ বেড়েছে। ২১ শতকে ১০ হাজার ডলার থেকে ১ লাখ ডলারের মালিকের সংখ্যা ৩ গুণ বেড়েছে।
করোনা মহামারির মধ্যে গেল বছর বিশ্বে নতুন করে লাখপতি হয়েছেন লাখ লাখ মানুষ। করোনা মহামারির আর্থিক ক্ষতি পুরো বিশ্ব কাটিয়ে উঠতে না পারলেও ২০২০ সালে লাখপতি হয়েছেন ৫০ লাখ মানুষ। যেখানে দরিদ্র মানুষ আরও বেশি দরিদ্র হয়েছেন, সেখানে লাখপতির সংখ্যা পুরো বিশ্বব্যাপী বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ কোটি ৬০ লাখে। গবেষণা প্রতিষ্ঠান ক্রেডিট স্যুর প্রতিবেদনে উঠে এসেছে এ তথ্য।
সারাবিশ্বে মোট সম্পদের পরিমাণ গেল বছর প্রায় সাড়ে ৭ শতাংশ বেড়েছে। ২১ শতকে ১০ হাজার ডলার থেকে ১ লাখ ডলারের মালিকের সংখ্যা ৩ গুণ বেড়েছে। ২০২০ সালের শুরুতে এ সংখ্যা ছিল ৫০ কোটি, ২০২০ সালের মাঝামাঝিতেই এ সংখ্যা পৌঁছেছে ১০০ কোটিতে। চীনের মতো উন্নয়নশীল দেশের মধ্যবিত্তরা এক্ষেত্রে অনেক বেশি এগিয়ে। ব্যাংকগুলো সুদহার কমিয়ে ব্যবসার সুযোগ দেওয়ায় আয়ের পথ সুগম হয়েছে।
তবে বিশ্বের অনেক দেশে মাথাপিছু ঋণ অনেক বেড়ে গেছে। ব্লুমবার্গ বলছে, ২০২০ সালে অন্তত ৫০০ ধনী ব্যক্তি নতুন করে আরও প্রায় ২ ট্রিলিয়ন ডলারের মালিক হয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্র আর ইউরোপে ১২ ট্রিলিয়ন আর ৯ ট্রিলিয়ন বেড়েছে কোটিপতিদের অর্থ সম্পদের পরিমাণ। প্রাপ্তবয়স্কদের সবচেয়ে বেশি অর্থ আছে- এমন দেশগুলোর মধ্যে চতুর্থ অবস্থানে আছে নিউজিল্যান্ড। অস্ট্রেলিয়া আছে এ তালিকায় শীর্ষ অবস্থানে। এরপরের অবস্থানে আছে হংকং আর বেলজিয়াম।
উত্তর আমেরিকা আর প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের মানুষও ২০২০ সালে কোটি কোটি ডলারের মালিক হয়েছেন। তবে ভারত আর লাতিন আমেরিকায় লাখপতি মানুষের সংখ্যা কমেছে।