মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড যশোরের হাল চিত্র

0
279

দরপত্র ছাড়াই সংস্কার ও বাসভবনে থেকে দু’মাসের ভাড়া কর্তন না করার খবর ফাঁস
এম আর রকি : মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড যশোরে চেয়ারম্যানের বাসভবনে অবস্থান করা সত্বেও সংস্থারের নামে দুই মাসের ঘর ভাড়া কর্তন না করার খবর পাওয়া গেছে।
বোর্ডের নির্ভরযোগ্য সূত্রগুলো জানিয়েছেন, গত বছর নভেম্বরের প্রথম দিকে বোর্ডে চেয়ারম্যান প্রফেসর মোহাম্মাদ আব্দুল আলীম যোগদান করেন। তিনি যোগদান করার পর থেকে বোর্ডের নিয়ম অনুযায়ী চেয়ারম্যানের বাস ভবন তার নামে বরাদ্ধ হয়। নভেম্বর মাস থেকে চেয়ারম্যান মহোদয়ের বাসভবন তার নামে বরাদ্ধ হওয়ার পাশাপাশি বাসা ভাড়া কর্তন হয়। বোর্ডের সূত্রগুলো দাবি করেছেন,সম্প্রতি দরপত্র আহবান ছাড়াই বোর্ডে চেয়ারম্যানের বাসভবন সংস্থার ও বোর্ডে চুনকাম কার্যক্রম শুরু হয়। সম্পূর্ন অনিয়মতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় বোর্ডের কোটেশনকে ছাড়িয়ে ২৫/৩০ লাখ টাকা ব্যয় হয়। বোর্ডের নিয়মতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে উপেক্ষা করে বোর্ডের কতিপয় কৌশলী কর্মকর্তা দরপত্র আহবান ছাড়াই চেয়ারম্যান মহোদয়ের বাস ভবন সংস্থারের কাজ শুরু করেন। যশোরের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে চেয়ারম্যান মহোদয় নিজে হাজির হয়ে বিভিন্ন মালামাল ক্রয় করে খুলনা থেকে শ্রমিক এনে বাস ভবনের কাজ চলছে। বোর্ডের সূত্রগুলো আরো জানায়,বোর্ডের নিয়ম প্রক্রিয়ায় ৫লাখ টাকা কোটেশনের ক্ষেত্রে দরপত্র আহবান ছাড়াই বোর্ডের ব্যয় সম্ভব। বোর্ডের নিয়মান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে উপেক্ষা করে এই প্রথম বোর্ডের ২৫ থেকে ৩০ লাখ টাকা ইতিমধ্যে ব্যয় হয়ে গেছে। সূত্রগুলো বলেছে,অনিয়মতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় চেয়ারম্যান বাসভবনের সংস্থারের কাজে যে অর্থ ব্যয় হচ্ছে ক্ষেত্রে খরচ দেখানো হচ্ছে ৪লাখ থেকে তিন লাখ থেকে শুরু করে বিভিন্ন অংকের টাকা। এক সাথে ব্যয়কৃত অর্থ দেখানো হচ্ছে না। সংস্থারের কাজে যে প্রতিষ্ঠান থেকে মালামাল ক্রয় করা হচ্ছে সেই প্রতিষ্ঠানের প্যাডে মালামালের মূল্যর রেট দিয়ে বিল প্রদানের অনুমোদন চাওয়া হচ্ছে ফাইলের মাধ্যমে। ছোট ছোট বিলের মাধ্যমে সংস্থারের অর্থ ব্যয় করা হচ্ছে। চেয়ারম্যানের বাসভবন সংস্থারের পাশাপাশি বিগত জানুয়ারী মাস থেকে সংস্থারের প্রক্রিয়া শুরু হলেও চেয়ারম্যান মহোদয় বাসভবন ছেড়ে না গেলেও তিনি জানুয়ারী ও ফেব্রুয়ারী মাসে সংস্থারের দোহায় দিয়ে এই দু’ মাসের বাসা ভাড়া বেতনের সাথে কর্তন করা হচেছ না বলে বোর্ডের সূত্রগুলো দাবি করেছেন। বাস ভবনে অবস্থান করা সত্বেও বাসা ভাড়া কর্তন না করা নিয়ে বোর্ডে কর্মরত কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মধ্যে নানা গুঞ্জন সৃষ্টি হয়েছে। বোর্ডের সূত্রগুলো আরো জানিয়েছেন, চেয়ারম্যানের বাসভবন সংস্থারের কাজ চলাকালে তিনি বাইরে কোথাও ভাড়া রয়েছে এমন কোন নজির নাই। চেয়ারম্যান মহোদয়ের বাস ভবন সংস্থারে দরপত্র আহবান ছাড়াই ও বাসভবনে অবস্থান নিয়েও বাসা ভাড়া কর্তন না করায় বোর্ডের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মাঝে গুঞ্জন সৃষ্টি হলেও চেয়াম্যান মহোদয়ের কারণে কেউ মুখ খুলতে পারছেনা। চেয়ারম্যানের সাথে যোগাযোগ করা হলেও তাকে না পাওয়া গেলেও অন্যান্য কর্মকর্তা এ ব্যাপারে বক্তব্য দিতে নারাজ প্রকাশ করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here