‘মুজিব বর্ষ’ বানান ভুল নিয়ে আয়োজক কমিটির ব্যাখ্যা

0
86

নিজস্ব প্রতিবেদক : মুজিব শতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক শপথ বাক্য পাঠের মূল মঞ্চের ডায়াসে ‘মুজিব বর্ষের’ শপথ লেখার পরিবর্তে ‘মুজিবর্ষের’ লেখার ব্যাখ্যা দিয়েছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি।
ডিভাইস ট্রান্সফারের একপর্যায়ে ‘মুজিব বর্ষের’ একটি ‘ব’ অক্ষর অমিট হয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন আয়োজক কমিটির মিডিয়া কনসাল্টেন্ট আসিফ কবীর।

তিনি বলেন, ‘পোডিয়ামের বানান ভ্রান্তিটির প্রাথমিক খোঁজখবরে যা জানতে পেরেছি তা হলো আমরা একটি চিপ-এ পিসি থেকে ট্রান্সফার করে লেখাটি উৎকীর্ণ করেছি। ডিভাইস ট্রান্সফারের একপর্যায়ে একটি ‘ব’ অক্ষর অমিট হয়ে গেছে। আমরা পিসিতে চেক করে দেখেছি এটা ঠিকই আছে। এডভান্স টেকনোলজির বিষয়টি হয়তো স্যুট করেনি।’

আসিফ কবীর বলেন, ‘এলইডিতে পরিস্ফুটন করে লেখাটি তোলা হয়েছে। পেডিয়ামের মনিটরেই আমরা ত্রুটিপূর্ণ বানান দেখতে পাই। এমন প্রাযুক্তিক গোলমালের বিষয়টি দৃষ্টিতে আসার পরপরই নামাজের বিরতিতে মাধ্যমটি পরিবর্তন করে ত্রুটি সংশোধন করা হয়। অর্থাৎ প্রথমে এলইডিতে পরে ম্যানুয়ালি উৎকীর্ণ করা প্লেট প্রতিস্থাপন করে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি একটি গণমাধ্যমের প্রশ্নের জবাবেও বিষয়টি ব্যাখ্যা করেছি। পরিবেশিত সংবাদে তারা সংক্ষেপিত উদ্ধৃতি করেছেন।’

বৃহস্পতিবার (১৬ ডিসেম্বর) বিকেল থেকেই বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনা শুরু হয়। অনেকে উল্লেখ করেন, বানানের ভুল শুধরে দেওয়ার দায়িত্ব কি প্রধানমন্ত্রীর? এমন ভুল চোখে পড়ায় আয়োজনের দায়িত্বে থাকা সংশ্লিষ্টদের দায়িত্বজ্ঞান নিয়েও প্রশ্ন তোলেন অনেকেই।

সিনিয়র সাংবাদিক মাসুদ কামাল তার ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, ‘মুজিববর্ষের এরকম ভুল বানানই প্রমাণ করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী গুরুত্বপূর্ণ কাজের দায়িত্ব যাদের হাতে দিয়েছেন তারা অনেকটাই অযোগ্য।’

বাংলাদেশ জার্নালিজম স্টুডেন্টস কাউন্সিলের (বিজেএসসি) জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি আরিফুল ইসলাম আরিফ তার ফেসবুক আইডিতে লিখেছেন, ‘বানান ভুলের তদারকিও কি প্রধানমন্ত্রীকেই করতে হবে! এত লোকজন তাহলে করেটা কী? এরকম গুরুত্বপূর্ণ জায়গাতেও বানান ভুল!’

ফেসবুকে একজন লিখেছেন, এতো বড় আয়োজনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সামনে ডায়াসের এই একমাত্র ছোট্ট লেখাটাও দেখার কি কেউ ছিল না?

আরেকজন লেখেন, ‘মুজিবর্ষ’ নাকি মুজিব বর্ষ?!! এতগুলো মানুষের কারও চোখেই পড়ল না?? রাষ্ট্রের এমন গুরুত্বপূর্ণ আয়োজনের দায়িত্বে যারা থাকেন, তারা কি উগান্ডা থেকে পড়ালেখা করে আসছেন নাকি। তাদের নিকট থেকে এমন ভুল আশা করা যায় না।

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক মোহাম্মদ আজম সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘মুজিব বর্ষকে মুজিবর্ষ লিখলে সেটি ভুল হবে। এভাবে লেখা যায় না।’

এদিকে বিজয়ের ৫০ বছর পূর্তিতে সারা দেশের মানুষকে শপথ বাক্য পাঠ করান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।