মুশফিকের বাবার বিরুদ্ধে হত্যা মামলা

0
431

বগুড়া প্রতিনিধি : বগুড়ায় স্কুলছাত্র মাসুক ফেরদৌস খুন হওয়ার ঘটনায় ক্রিকেটার মুশফিকুর রহীমের বাবা মাহবুব হামিদসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

মাসুকের বাবা জাসদ নেতা এমদাদুল হক এমদাদ বাদী হয়ে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বগুড়া সদর থানায় এ মামলা করেন। মামলায় মাহবুব হামিদকে প্রধান আসামি করা হয়েছে।

গত শনিবার শহরতলীর মাটিডালী হাজিপাড়ায় এলাকায় বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে স্কুলছাত্র মাসুক ফেরদৌসকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

এই খুনের প্রতিবাদে সোমবার শহরের সাতমাথায় এক সমাবেশে মুশফিকের বাবা মাহবুব হামিদ তারার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এমদাদ। এর একদিন পরেই মঙ্গলবার মামলা করলেন তিনি।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন-মুশফিকুর রহীমের চাচা ১৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. মেজবাহুল হামিদ,  মো. লাল মিয়া,  মো. খায়রুল, আল আমিন হেলাল, ছামছুল, মো. তারাজুল ইসলাম, মো. নাইম ইসলাম, মো. অনিক ইসলাম, মো. নাহিদ, কাঞ্চন, ফয়সাল, শাকিল, সাকিব, বিটুল ও আল মামুন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়েছে, মাহবুব হামিদ তারা ও তার ছোট ভাই বগুড়া পৌরসভার ১৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. মেজবাহুল হামিদের সঙ্গে পারিবারিক শত্রুতা এবং মাটিডালি উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন নিয়ে বাদীর শত্রুতা চলে আসছিল। তারা বিভিন্ন সময় বাদী ও বাদীর পরিবারের ক্ষতি করার পরিকল্পনা করতে থাকে। তারই ধারাবাহিকতায় গত শনিবার রাতে প্রতিবেশী বেলাল হোসেন ফকিরের বাড়িতে তার ছেলে নাইমকে দিয়ে মাসুক ফেরদৌসকে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে যাওয়া হয়। প্রধান আসামি মাহবুব হামিদ তারা ও অপর আসামি লালমিয়া মাসুককে জাপটে ধরলে অপর আসামি ফয়সাল মাসুককে হত্যার উদ্দেশ্যে পেছন থেকে ক্রিকেট ব্যাট দিয়ে মাথায় আঘাত করে। এসময় মাসুক মাটিতে লুটিয়ে পড়লে হত্যাকারীরা উল্লাস করে চলে যায়। পরে অধিক রক্তক্ষরণে মাসুকের মৃত্যু হয়।

হত্যাকাণ্ডের পর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনজনকে আটক করা হলেও সাফিন নামে এক কিশোরকে রেখে বাকি দুজনকে পুলিশ ছেড়ে দিয়েছে। আটক সাফিন নিহত মাসুক ফেরদৌসের বন্ধু।

বগুড়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এমদাদ হোসেন জানান, জাসদ নেতার ছেলে খুনের ঘটনায় মঙ্গলবার ১৬ জনের বিরুদ্ধে নিহতের বাবা বাদী হয়ে যে অভিযোগ করেছেন, সেটি মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হয়েছে। বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে। তবে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করা হবে কি না জানতে চাইলে ওসি বলেন, তদন্ত করার পর  অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here