মৈত্রী ভলান্টিয়ার্সের উদ্যোগে শহরের ৪টি স্কুলে মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিতরণ

0
57

প্রেস বিজ্ঞপ্তি : মৈত্রী ভলান্টিয়ার্সের পক্ষ থেকে যশোরে ৪টি স্কুলে মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিতরণ করা হয়েছে। করোনার প্রভাবের স্থবিরতা থাকা স্কুল-কলেজসমুহ সরকারের ঘোষণার মুক্তি পাচ্ছে। করোনার প্রথম প্রবাহে রোগটি শিশুদের হতোনা। কিন্ত এখন শিশুদেরও হচ্ছে। একারনে স্কুল কলেজের শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীদের চ্যালেঞ্জ নিতে হবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে করোনার অনুপ্রবেশ ঠেকানোর। মৈত্রী ভলান্টিয়ার্স করোনা প্রতিরোধের চ্যালেঞ্জ যাতে স্কুল কলেজের ছাত্র-ছাত্রীর যথাযথ পালন করে সে জন্য মাস্কও স্যানিটাইজার উপহার প্রদান করে উৎসাহিত করার কর্মসূচি গ্রহন করে।
আজ শংকরপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মুসলিম একাডেমী, সেবা সংঘ বালিকা বিদ্যালয় ও ইসলামিয়া বালিকা বিদ্যালয়ে কাপড়ের মাস্ক ও স্যানিটাইজার প্রদান করে।
শংকরপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম বুলবুলের হাতে ৩০০ মাস্ক ও ১০ বতল স্যানিটাইজার তুলে দেয়া হয়। শিকক্ষক ও ছাত্র ছাত্রীদের উপস্থিতিতে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে ভলান্টিয়ার হারুন অর রশীদ বলেন স্বাস্থবিধী মেনে করোনাকে স্কুলে প্রবেশ করতে না দেয়ার চ্যালেঞ্জ গ্রহন করতে হবে। মৈত্রী ভলান্টিয়ার্স এর সদস্য সচিব কাজী মামুনুর রশীদ উপস্থিত ছিলেন।
মুসলিম একাডেমীর প্রধান শিক্ষক পল্লব কান্তি বিশ্বাসের হাতে ৩০০ মাস্ক ও স্যানিটাইজার প্রদান করেন কাজী মামুনুর রশীদ, হারুন অর রশীদ ও আলাউদ্দিন আহম্মদ, এ সময় প্রধান শিক্ষক মৈত্রী ভলান্টিয়ার্স এর এই উপহার আসলেই উপকারী বিধায় তাদের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
সেবাসংঘ বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাকির হোসেন ২০০ মাস্ক ও ১০ বতল স্যানিটাইজার গ্রহন করেন, এ সময় অন্যান্য শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন।
ইসলামিয়া বালিকা বিদ্যালয়ে সাড়ে ১২টায় প্রধান শিক্ষক রেজাউল হক ৩০০মাস্ক ও স্যানিটাইজার গ্রহন করের এসময় সহকারী প্রধান শিক্ষক সৈয়দা বানু শিল্পী উপস্থিত ছিলেন, মৈত্রী ভলান্টিয়ার্স এর পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন কাজী মামুনুর রশীদ, হারুন অর রশীদ, মঞ্জুরুল হক ও আলাউদ্দিন আহম্মদ।
উল্লেখ্য, কেনায়েত আলী ও আনোয়ারা খাতুন ট্রাস্টের পক্ষ থেকে এই মাস্ক সরবরাহ করা হয়।