যশোরে আজ জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন

0
173

নিজস্ব প্রতিবেদক : জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন আজ। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আইনজীবীদের মধ্যে বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ। প্রচারপ্রচারণা তিন প্যানেলই চালিয়েছে সমান তালে। সভাপতি-সম্পাদক পদে লড়াই হবে হাড্ডাহাড্ডি ধারণা সাধারণ আইনজীবীদের। এছাড়া নতুন আইনজীবীদের ভোটও ফ্যাক্টর হতে পারে বলে ধারণা করছেন কেউ কেউ। বিষয়টি মাথায় রেখে প্রার্থীরাও যে যার মতো কৌশলে নবীন ভোটার টানতে ব্যস্ত। তরুণ আইনজীবীরা মনে করছেন, চেহারা বা প্যানেল বিবেচনায় নয় , দক্ষতা-যোগ্যতা বিবেচনা করে আইনজীবীরা ভোট দেবেন। এবারের নির্বাচনে সব প্যানেলই শক্তিশালী প্রার্থী নিশ্চিত করায় কাউকে হেলা করা যাচ্ছে না।
উল্লেখ, বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের নেতৃত্বধীন মহাজোটের প্যানেলে প্রার্থীরা হলেন সভাপতি পদে গাজি আব্দুল কাদির, সাধারণ সম্পাদক পদে শাহীনুর আলম শাহীন, সহসভাপতি পদে খোন্দকার মোয়াজ্জেম হোসেন মুকুুল ও জিএম আবু মুছা, যুগ্ম সম্পাদক আবুল কায়েস, সহকারী সম্পাদক পদে জাহিদুল ইসলাম সুইট, ও নাসির উদ্দিন , গ্রন্থাগার সম্পাদক শহিদুল ইসলাম (৬), কার্যকারী সদস্য রেজাউর রহমান, আব্দুল্লাহ আল মাসুদ, নব কুমার কুন্ডু, আরিফ শাহরিয়ার ও উদয়ন বিশ্বাস। এছাড়া, জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য প্যানেলের মনোনীত প্রার্থীরা হলেন সভাপতি পদে আর এম মঈনুল হক ময়না, সাধারণ সম্পাদক পদে এম এ গফুর, সহ-সভাপতি পদে আব্দুল লতিফ ও মঞ্জুর কাদের আশিক, যুগ্ম সম্পাদক পদে আশেক মাসুক সুমন , সহকারী সম্পাদক পদে কাজী সেলিম রেজা ময়না ও মাধবেন্দ্র অধিকারী, গ্রন্থাগার সম্পাদক পদে নুরুজ্জামান খান এবং কার্যকরী সদস্য পদে মাহমুদা খানম, মকবুল হোসেন, সেলিম রেজা, রোকনুজ্জামান ও রুহিন বালুজ।
এ ছাড়া গনতান্ত্রিক আইনজীবী সমিতির মনোনিত একমাত্রপ্রার্থী কাজী ফরিদুল ইসলাম সভাপতি পদে নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনার ইসমত হাসার বলেন, তাদের সকল ধরণের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। শনিবার সমিতির ১ নম্বর ভবন মিলনায়তনে সকাল ১০ থেকে বিরতিহীনভাবে বিকেল সাড়ে ৪ পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলবে। নির্বাচনে এবার আটটি বুথ তৈরী করা হয়েছে। এবারের নির্বাচনে ৪শ ৭৪ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।
এ বিষয়ে সাধারণ আইনজীবীদের অভিমত, নির্বাচনের আগে অনেকে অনেকরকম আশ্বাস দেন। কিন্তু জয়ী হলে সব ভুলে যায়। বর্তমান কমিটির শীর্ষপর্যায়ের কয়েখজন নেতা রয়েছেন যারা টাউটদের আশ্রয় প্রশ্রয় দিচ্ছেন। এধরণের ঘটনার তারা পুনঃরার্বিতি যাতে না হয় সেদিকে সকলকে দৃষ্টি রাখার আহবান জানান তারা। তারা আরো বলেন, চুলচেড়া বিশ্লেষন করেই ভোটের ব্যালটে তাদের সিল পরবে।#