যশোরে হত্যা মামলার আসামীকে হত্যা

0
36

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোর সদর উপজেলার চাঁচড়ার দক্ষিণ বর্মনপাড়ার শ্মশানে রনি (২৪) নামে এক যুবক খুন হয়েছেন। ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে তাকে হত্যা করা হয়েছে। রোববার রাতে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। রনি চাঁচড়া এলাকার ইমরোজ হত্যা মামলার আসামি।
স্থানীয় ও পুলিশের একটি সূত্র জানায়,শনিবার রনিকে মদ খাওয়ার জন্য ডেকে নিয়ে যায় কুলিন বর্মনের ছেলে রকি (১৯)। এরপর আর খোজ মেলেনি রনির। ধারনা করা হচ্ছে পূর্ব শত্রুতার জেরে রকিই হত্যা করেছে রনিকে।
চাঁচড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইনসপেক্টর আকিকুল ইসলাম জানান, নিহত রনি চাঁচড়া মোল্লাপাড়ার আশ্রয়ন প্রকল্পের বাসিন্দা বাবুর ছেলে। পরিবারের কাছ থেকে জানতে পেরেছেন, রনি বিভিন্ন ব্যক্তির মাছের ঘেরে কাজ করতেন। গত শনিবার রাত থেকে ওই যুবক নিখোঁজ ছিলেন। বিভিন্ন স্থানে খোঁজখুঁজির এক পর্যায়ে রোববার সন্ধ্যায় চাঁচড়া দক্ষিণ বর্মনপাড়ার শ্মশানে তার লাশ পাওয়া যায়। খবর পেয়ে রাতে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে। নিহতের শরীরে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ধারনা করা হচ্ছে, তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এ বিষয়ে রকিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আনা হয়েছে।
অপর একটি সূত্র জানায়, শনিবার সন্ধায় আতিয়ার তার বাসা থেকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপরে তাকে আর খুজে পাওয়া যায়নি। অপর একটি সুত্র বলছে স্থানীয় নুরু মিয়া ওরফে মহুরী নুরুর নেতৃত্ব লিটন, কাজল, ইমরুল ও আতিয়ারের নেতৃত্ব কয়েকজন রনিকে গলা কেটে মরদেহ শ্মশানের পাশে ফেলে রেখে যায়।
কোতয়ালী থানার ওসি তাজুল ইসলাম বলেন, ইমরুজ হত্যাকাণ্ডের প্রতিশোধ নিতে তাকে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িতদের আটকের জন্য পুলিশ অভিযানে আছে।