যশোরের কেশবপুরে পুনরায় মেয়র আওয়ামী লীগের রফিকুল ইসলাম

0
108

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোরের কেশবপুর পৌরসভা নির্বাচনে রফিকুল ইসলাম আবারো মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতিকে দলীয় মনোনয়ন পান। তিনি ১১ হাজার ৮ শত ৮৮ ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী বিএনপির মনোনীত আব্দুস সামাদ বিশ্বাস (ধানের শীষ) পেয়েছে ২ হাজার ৩ শত ১৩ ভোট ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ আব্দুল কাদের (হাতপাখা) পেয়েছেন ৪শত ১০ ভোট ।
নির্বাচিত কাউন্সিররা হলেন ১নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর আওয়ামী লীগ সমর্থিত আতিয়ার রহমান,
২নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর বিএনপি সমর্থিত মশিয়ার রহমান, ৩নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর কবীর হোসেন, ৪নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর আফজাল হোসেন বাবু, ৫নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর আওয়ামী লীগ সমর্থিত কাউন্সিলর বিশ্বাস শহীদুজ্জামান, ৬নং ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ সমর্থিত কাউন্সিলর মনোয়ার হোসেন মিন্টু, ৭নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর আওয়ামী লীগ সমর্থিত কামাল খান, ৮নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর বিএনপি সমর্থিত আব্দুল হালিম মোড়ল, ৯নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর আওয়ামী লীগের ইবাদাত সিদ্দিক বিপুল। সংরক্ষিত ১ আসনে খাদিজা খাতুন, সংরক্ষিত ২ আসনে আছিয়া খাতুন,সংরক্ষিত ৩ আসনে আসমা খলিল। রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) ভোটকেন্দ্র ঘুরে দেখা গেছে, সকাল সাড়ে ৭ টার দিকে অনেক কেন্দ্রে ভোটাররা আসতে শুরু করে। তীব্র রোদ উপেক্ষা করে ভোট দিতে আসা নারীদের দীর্ঘ লাইন দেখা যায়।
উপজেলা নির্বাচন অফিসার বজলুর রশিদ জানান, ১০টি ভোট কেন্দ্রের ৬৩টি কক্ষে ৫ম ধাপের এ নির্বাচনে ইভিএমের মাধ্যমে ভোট গ্রহণ করা হয়েছে। কেশবপুর পৌরসভার মোট ভোটার সংখ্যা ২০ হাজার ৭৭৫ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১০ হাজার ২০৮ জন ও মহিলা ভোটার রয়েছেন ১০ হাজার ৫৬৭ জন।
উৎসবমুখর পরিবেশ ও প্রশাসনের কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) কেশবপুর পৌরসভা নির্বাচনে ইভিএমে (ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিং) ভোট গ্রহণ করা হয়। সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহন শুরু হয়। বিরতিহীন ভাবে শেষ হয় বিকেল ৪টায়। ভোটকে ঘিরে ভোটারদের মাঝে ছিলো উৎসাহ উদ্দীপরা। তবে কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। ভোটারদের উপস্থিতি ছিলো চোখে পড়ার মত। #