যশোরের চৌগাছা উপজেলার মাদক সম্রাট এক্সের আলী ও তার সহযোগী প্রাইভেট চালক সাইদুল বন্দুক যুদ্ধে নিহত, অতঃপর

0
363

এম আর রকি : অবশেষে চৌগাছা উপজেলার বড় কাবিলপুর গ্রামের আব্দুস সাত্তার ধাবকের ছেলে মাদক সম্রাট এক্সের আলী (৫০) ও তার প্রাইভেটের চালক সাইদুল (৩৮) এর সন্ধান পাওয়া গেছে। তবে তাদেরকে জীবিত নয় মৃত অবস্থায় যশোরের চৌগাছা উপজেলার সলুয়া ও নিমতলা বাজারের কাছাকাছি একটি ধানের ক্ষেতের মধ্যে থেকে পুলিশ উদ্ধার করেছে। পুলিশ বলেছে দু’গ্রুপের মাদক ব্যবসায়ীদের মধ্যে বন্দুক যুদ্ধের ঘটনায় চৌগাছা উপজেলার র্শীষ মাদক ব্যবসায়ী এক্সের আলী ও তার সহযোগী প্রাইভেট কারের চালক সাইদুল ইসলাম নিহত হয়েছে। বুধবার সকালে চৌগাছা থানা পুলিশ খবর পেয়ে লাশ দু’টি উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে ময়না তদন্ত সম্পন্ন করে। দু’গ্রুপের মাদক ব্যবসায়ীদের মধ্যে বন্দুক যুদ্ধে এ দু’জন নিহত হওয়ার ঘটনাটি চৌগাছা থানার সেকেন্ড অফিসার আকিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন। অপর দিকে,চৌগাছা থানায় কর্মরত এএসআই আসাদ সাংবাদিকদের জানান, চৌগাছা উপজেলার সলুয়া ও নিমতলা বাজারের কাছাকাছি এলাকায় দু’গ্রুপের বন্দুকযুদ্ধের খবর পায় পুলিশ। খবরের ভিত্তিতে পুলিশের একটি ভ্রাম্যমান দল ঘটনাস্থলে যায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে দূর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে দু’জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল,এক রাউন্ড গুলি ও এক বস্তা ফেনসিডিল জব্দ করেন। এ ব্যাপারে চৌগাছা থানায় অস্ত্রগুলি ও মাদক উদ্ধারের ঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে দু’টি মামলা নথিভূক্ত করার প্রস্তুতি নিয়েছে। অপর একটি সূত্র বলেছে,মঙ্গলবার ভোর রাতে যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার শ্রীরামপুর গ্রাম থেকে ফেনসিডিল বোঝাই প্রাইভেট কারসহ চৌগাছা উপজেলার বড় কাবিলপুর গ্রামের আব্দুস সাত্তার ধাবকের ছেলে মাদক স¤্রাট এক্সের ও তার প্রাইভেটের চালক সাইদুল ইসলাম যে সাদা পোশাকধারী পুলিশের কাছে গ্রেফতার হয় এ খবর এক্সেরের পরিবারের সদস্যদের কাছে পৌছে যায়। এক্সের আলীর পরিবারের সদস্যরা কোন সংস্থার হাতে প্রাইভেট কারসহ দু’জন গ্রেফতার হয় তার সন্ধানে মঙ্গলবার ব্যাপক অনুসন্ধান চালায়। নিহত এক্সেরের পরিবার সাদা পোশাকধারী পুলিশের হাতে আটকের খবর পান মুড়োলী মোড় বিজিবি’র হাতে জব্দকৃত ফেনসিডিল বহনকারী ট্রাকের চালকের মাধ্যমে। ট্রাক চালক আব্দুল আজিজ এক্সের আলীর পরিবারের কাছে মঙ্গলবার ভোর ৫ টায় যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার শ্রীরামপুর গ্রামের মাঠ এলাকা থেকে প্রাইভেটকারের মধ্যে থাকা মাদক স¤্রাট এক্সের আলী ও তার চালক সাইদুল আটকের খবর নিশ্চিত করেন। পরিবারের সদস্যরা সকাল থেকে এক্সের আলী ও তার প্রাইভেক কারের চালক সাইদুলের মোবাইলে ফোন করে বন্ধ পান। মোবাইল বন্ধ পাওয়ার পর নিশ্চিত হন তারা গ্রেফতার হয়েছে। সূত্রটি জানিয়েছে,বুধবার সকালে এক্সের আলী ও চালক সাইদুলের লাশের পাশে এক বস্তা ফেনসিডিল পাওয়া গেলেও তাদের বহনকৃত প্রাইভেট কারের সন্ধান এখন পাননি তার পরিবার। পরিবারের সদস্যরা এলাকাবাসীদের সাথে ক্ষোভের সাথে জানিয়েছেন,পুলিশের বিভিন্ন সংস্থাকে এক্সের আলী মাসে দুই থেকে আড়াই লাখ টাকা মাসোহারা দিয়ে রীতিমতো মাদক ব্যবসা করতেন। সরকারের বিভিন্ন সংস্থা এক্সের আলীকে মাদক ব্যবসা করতে সহযোগীতা করলে তিনি কোনভাবে মরণ নেশা মাদকের ব্যবসা করতে পারতেন না। মাসে পুলিশের কোন ইউনিটকে কত টাকা দিতেন তা এক্সের আলীর পরিবার জানেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here