যশোরে অর্থলোভী ইজিবাইক চালকদের কাছে জনসাধারণ জিম্মি হয়ে পড়েছে !

0
395

এম আর রকি  : যশোরে অর্থলোভী ইজিবাইক চালক ও রিকশা এবং ভ্যান চালকদের হাতে জন সাধারণ জিম্মি হয়ে পড়েছে। প্রতিনিয়ত জন সাধারণের সাথে অর্থলোভী ইজিবাইক,রিকশা,অটোরিকশা ও ভ্যান চালকদের সাথে জনসাধারণের অপ্রীতিকর ঘটনা সৃষ্টি হচ্ছে। এর জন্য জনসাধারণ যশোর পৌরসভাসহ সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের দায়ী করে এর সমাধান দাবি করেছেন।
যশোর উপশহর এলাকার শহিদুল ইসলাম অভিযোগ করেন,নিয়মকে উপেক্ষা করে যশোর উপশহর খাজুরা বাসস্ট্যান্ড,দড়াটানা,চিত্রা মোড়,সিভিল কোর্ট মোড়,যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে সামনে,মুসলিম একাডেমী,গরীবশাহ সড়ক,চৌরাস্তা মোড়,থানা মোড়,মনিহার,মুড়োলী,চাঁচড়া চেকপোষ্ট,পালবাড়ী মোড়,শেখহাটি জামরুল তলা,আরবপুর,শংকরপুর বাস টার্মিনাল, আঞ্চলিক পাসপোর্টের সামনেসহ যশোরের যে সব রুটে ইজিবাইক চলাচল করছে। তাদের মধ্যে কতিপয় অর্থলোভী ইজিবাইক চালকেরা ৫ টাকার ভাড়া এখন ১০ টা দাবি করছে। হঠাৎ ভাড়া বৃদ্ধি নিয়ে ইজিবাইক যাত্রীদের সাথে চালকদের প্রতিনিয়ত মারপিটসহ নানা অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটছে। ইজিবাইক চালকেরা পৌরসভার লাইসেন্সের অজুহাতে ভাড়া বৃদ্ধি করে দিয়েছে। অথচ পৌরসভার বাইরে স্ট্যান্ড গুলিতে যে সব ইজিবাইক চালকেরা রয়েছে তারা পৌরসভার লাইসেন্স না করলেও তারাও ভাড়া বৃদ্ধি করে দিয়েছে। পৌরসভার অধীনে বিভিন্ন রুটে চলাচলরত ইজিবাইকের চালকেরা পৌর সভার লাইসেন্সের অজুহাতে ভাড়া বৃদ্ধি করে দিয়েছে সম্পূর্ন অনৈতিকভাবে। পৌরসভার অধীনে ভাড়া নির্ধারণের দাবি জানিয়েছেন যশোর পৌরসভার নাগরিকগন। ব্যাটারী চালিত ইজিবাইকের হঠাৎ ভাড়া বৃদ্ধির কারনে ইজিবাইকের উপর নির্ভরশীল অফিসগামী নারী পুরুষের পাশাপাশি জনসাধারণ পড়েছে দারুন সমস্যায়। শহরের ঘোপ এলাকার বাসিন্দা সাইফুল ইসলাম জানান,সম্পূর্ণ অনৈতিক ভাবে ইজিবাইক চালকেরা ভাড়া বৃদ্ধি করে দেওয়ায় জনসাধারণ পড়েছে দারুন সমস্যায়। প্রতিনিয়ত ইজিবাইক চালকের সাথে জনসাধারণের হাতাহাতিসহ অপ্রীতিকর ঘটনা অবসান নিরুপনের জন্য পৌরসভার মেয়রসহ সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তার দৃষ্টি কামনা করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here