যশোরে আন্তঃজেলা চোর চক্রের ১০ সদস্য গ্রেফতার ১১ মোটর সাইকেল ও সোয়াদুই লাখ টাকা উদ্ধার

0
115

নিজস্ব প্রতিবেদক : আন্তজেলা মোটর সাইকেল চোর সিন্ডিকেটের ১১ সদস্যকে আটক করেছে যশোর জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। জেলার কেশবপুর থানার একটি মোটর সাইলে চুরি মামলার তদন্তে নেমে এ চোর চক্রের সন্ধান পায় ডিবি যশোর। পরে যশোর, মাগুরা, রাজবাড়ী ও ফরিদপুরে অভিযান চালিয়ে চোর সিন্ডিকেটের ১০ সদস্যকে আটক করে তারা। এ সময় চোর চক্রের কাছ থেকে ১১ টি মোটর সাইকেল, তিনটি মাস্টার চাবি, তিনটি কুরিয়ার রশিদ ও ২ লাখ ২৫ হাজার নগদ টাকা উদ্ধার করে জব্দ করে ডিবি পুলিশ।
আটককৃতরা হলো- গোপালগঞ্জের কাশিয়ানি উপজেলার পারকোরপা গ্রামের মতি মোল্লার ছেলে নুর ইসলাম (৩০) বর্তমানে যশোরের বালিয়াডাঙ্গা মাঠপাড়া এলাকার বাসিন্দা, যশোরের চাঁদপুর রোডের সুলতানপুরের হামিদের বাড়ির ভাড়াটিয়া নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার বরুমানিনগর নলদী গ্রামের গোলাম মোস্তফা শেখের ছেলে আলামিন শেখ (২৮), যশোর উপশহরের ৭ নং সেক্টরের আঃ রহমানের বাড়ির ভাড়াটিয়া খুলনার ফুলতলা উপজেলার গাড়াখোলা গ্রামের মৃত- জাকির হোসেনের ছেলে আক্তার হোসেন (৩৯), যশোর বেজপাড়ার বাসিন্দা সদর উপজেলার জগন্নাথপুর গ্রামের আকসেদ গাজীর ছেলে ফারুক গাজী (৩৬), যশোরের নরেন্দ্রপুরের মোহাম্মদ আলীর ছেলে কবীর ওরফে নূর ইসলাম (৪০), মাগুরা সদর উপজেলার পার নান্দুয়ালী মোল্পাপাড়া গ্রামের এনামুল হকের ছেলে চঞ্চল (৩১), আসলাম মোল্যার ছেলে রশিদুল (৩২), মুন্সি মাহমুদুল হকের ছেলে মুজিবুল হক (৩৩), কেশবপুর উপজেলার কাজীর বেড় গ্রামের আব্দুস সাত্তারের ছেলে মাধু (৩২), রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি থানার সর্পব্যতেঙ্গা গ্রামের জোমারত মল্লি­কের ছেলে সালাম মলি­ক (৩৬)বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি রুপন কুমার সরকার এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
বৃহস্পতিবার দুপুরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সাংবাদিক সন্মেলনে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম জানান, যশোরের পুলিশ সুপারের দিকনির্দেশনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি), অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এডমিন ও অপরাধ), অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, ক’ সার্কেলেনর সার্বিক তত্ত¡াবধানে ওসি ডিবি, যশোর রুপন কুমার সরকার পিপিএম এর নেতৃত্বে কেশবপুর থানার মামলা নং-০১(০৩)২১, ধারা-৩৭৯ পেনাল কোড মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই শামীম হোসেন, এসআই ইদ্রিসুর রহমান, এসআই শাহীনূর রহমানদের সমন্বয়ে একটা চৌকস টিম যশোর কোতোয়ালি মডেল থানা এলাকায় এবং মাগুরা, রাজবাড়ী, ফরিদপুর জেলার বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করে আন্তঃজেলা চোর চক্রের মোট ১০ সদস্যকে গ্রেফতার এবং তাদের হেফাজত হতে মোট ১১ টা চোরাই মোটরসাইকেল, ০৩ টা মাস্টার চাবী, চোরাই মোটরসাইকেল বিক্রয়লব্ধ নগদ ২ লাখ ২৫ হাজার টাকাসহ বিভিন্ন আলামত জব্দ করে।
এ ঘটনায় কোতোয়ালি মডেল থানার মামলা নং-৩৩, তাং- ০৯/০৯/২১ খ্রিঃ, ধারা-৩৭৯/৪১১/৪১৩/৩৪ দায়ের হয়েছে। এ ঘটনায় চোর চক্রের নিকট হতে ঝিকরগাছা থানার মামলা নং-০৫(০৯)২১, ধারা-৩৭৯ পেনাল কোড মামলার আলামত উদ্ধারসহ মামলার ঘটনা উদঘাটিত হয়েছে।
ডিবি ওসি আরও জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃতরা একটি সংঘবদ্ধ মোটরসাইকেল চোর চক্রের সক্রিয় সদস্য বলে স্বীকার করেছে। তারা যশোর জেলাসহ আশপাশ জেলা সমূহে মোটরসাইকেল চুরি করে দেশের বিভিন্ন স্থানে এস এ পরিবহন ও জননী কুরিয়ারের মাধ্যমে ও সরাসরি ক্রয় বিক্রয় করে। তাদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জানান,চোরাই মোটরসাইকেল বেচাকেনার সাথে কুরিয়ারের স্টাফরা জড়িত।তাদের বিরুদ্ধেও আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান।