যশোরে ঐতিহ্যবাহী তালপাতায় হাতেখড়িতে শিক্ষাজীবন শুরু ৩শ’ শিশুর

0
31
Exif_JPEG_420

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোরে উৎসবমুখর পরিবেশে গুরুজনদের হাত ধরে ঐতিহ্যবাহী তালপাতায় হাতেখড়ির মাধ্যমে শিক্ষাজীবনের সূচনা করেছে তিন শতাধিক কোমলমতি শিশু। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার গুণী মানুষেরা উপস্থিত হয়ে শিশুদের হাত ধরে তালাপাতার ওপর লিখিয়ে বিদ্যা অর্জনের শুভ সূচনা করেন। এ উপলক্ষে শনিবার বেলা ১১ টায় শহরের পৌর পার্কে মাঠে বসেছিল শিশুদের মিলনমেলা। উদীচীর উদ্যোগে শহরের ৭টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিশুদের নিয়ে উৎসবের আয়োজন করা হয়।
জাতীয় সঙ্গীতের পর উদীচীর সঙ্গীত পরিবেশনা দিয়ে শুরু হয় এ উৎসব। উৎসবের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খান। এসময় তিনি বলেন, স্কুল জীবনে জ্ঞানার্জনের শুরুতে সার্বজনীন এমন আয়োজন উপস্থিত কোমলমতি শিশুদের অনুপ্রাণিত করবে। অভিভাবকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, স্কুল জীবন শিক্ষাজীবন যেন বোঝা না হয় সেদিকে অভিভাবকদের খেয়াল রাখতে হবে। এ শিক্ষায় মানুষের মতো মানুষ করে গড়ে তুলতে শিশুদের শিশুর মতো বড় হতে দিন। তিনি বলেন, সব কিছুতে প্রথম হতে হবে এমন মানসিক চাপ দিয়ে বড় করে তোলার প্রয়াস শিশুদের সুকুমার প্রবৃত্তি প্রকাশ বাধাগ্রস্ত হয়, যা কোনো অভিভাবকের কাম্য হতে পারে না। তিনি শিক্ষার শুরুতে শিশুদের নিয়ে এমন আয়োজন করায় উদীচীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।
উদীচী যশোরের সহ সভাপতি অ্যাডভোকেট আমিনুর রহমান হিরুর সভাপতিত্বরে বক্তব্য রাখেন যশোর পৌরসভার মেয়র হায়দার গনি খান পলাশ, দৈনিক কল্যাণের প্রকাশক ও সম্পাদক মুক্তিযুদ্ধা একরাম-উদ্দ-দৌলা, গ্রামের কাগজের সম্পাদক মবিনুল ইসলাম মবিন, অক্ষর শিক্ষালয়ের অধ্যক্ষ শৈলেস কুমার রায়। স্বাগত বক্তব্য রাখেন উদীচী সাধারণ সস্পাদক সাজ্জাদুর রহমান বিপ্লব।
আয়োজকরা জানান, ২০১১ সাল থেকে উদীচী যশোরের উদ্যোগে হাতেখড়ি উৎসবের আয়োজন হয়ে আসছে। উৎসবে উদীচী যশোর পরিচালিত ‘অক্ষর শিশু শিক্ষালয়’-এর নতুন ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীসহ ব্যাপিস্ট চার্চ বিদ্যালয়, অংকুর কিন্ডার গার্টেন, বালিয়াডাঙ্গা মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মৌমাছি স্কুল,ওয়াই ডাব্লিউ সি এ স্কুল, সেঞ্চুরি প্রিক্যাডেট স্কুলের তিন শতাধিক শিক্ষার্থীর হাতেখড়ি হয়। আমন্ত্রিত অতিথি ও জেলার স্ব-স্ব ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তিবর্গ শিশুদের হাতেখড়ি দেন। এর আগে কুয়াশাচ্ছন্ন শীতের সকাল থেকে অভিভাবকদের হাত ধরে পৌর পার্কে জড়ো হন কোমলমতি শিশুরা। অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আয়োজকরা শিশুদের হাতে তুলে দেন রঙবেরঙের বেলুন ও ফুল।