যশোরে কলেজছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার ॥ মৃত্যুর নেপথ্যে প্রেম

0
256

বিশেষ প্রতিনিধি : যশোর মণিরামপুর উপজেলা এলাকায় এক কলেজ ছাত্রী বিপাশা মন্ডল ওরফে লক্ষী (২৩) এর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি ওই উপজেলার কুলটিয়া ইউনিয়নের লখাইডাঙ্গা গ্রামের রণজিৎ মন্ডলের মেয়ে।
শুক্রবার দুপুরে থানা পুলিশ বাড়ি থেকে যুবতীর লাশ উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। তিনি যশোর সরকারি এমএম কলেজের দর্শন (অনার্স) শেষ বর্ষের ছাত্রী। এই ঘটনায় মণিরামপুর থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।
নিহত লক্ষীর স্বজনরা জানায়, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১ টায় বাড়ির পাশে পুকুর ধারে একটি আমগাছের সাথে ওড়না জড়িয়ে গলায় ফাঁস দেন বিপাশা। মেয়েকে না পেয়ে বাড়ির লোকজন খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে গভীর রাতে পুকুর ধারে ঝুলন্ত অবস্থায় তার লাশ দেখতে পান। সকালে খবর পেয়ে থানার এসআই জুয়েল রানা ঘটনাস্থলে যান।
এ বিষয়ে গ্রামবাসী জানায়, এমএম কলেজে পড়ুয়া একই উপজেলার পাঁচবাড়িয়া জেলে পাড়ার এক ছেলের সাথে বিপাশার দীর্ঘ দিনের প্রেম ছিল। সম্প্রতি তাদের মধ্যে মনোমালিন্য হয়। একদিন আগে কলেজ থেকে বাড়িতে ফিরে আসেন বিপাশা। এরপর নিজের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে একটি চিরকুট লিখে আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। যেখানে নিজের মৃত্যুর জন্য ওই ছেলেটিকে দায়ী করেছেন। কিন্তু মোবাইল থেকে ম্যাসেজটি সেন্ট না হয়ে বিপাশার মোবাইলে ড্রাফট আকারে থেকে যায়। ফলে প্রেমিক যুবকটি তার মৃত্যুর কারণটিও জানতে পারেনি। তবে বিপাশার মৃত্যুর ব্যাপারে পরিবারের লোকজন মুখ খুলছেন না।এসআই জুয়েল রানা বলেন, এমন কিছু জানতে পারিনি। তবে ওই ছাত্রীর ব্যবহৃত মোবাইলটি এনেছি। এখনও সেটা চেক করা হয়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here