যশোরে কিশোরীকে অপহরণ পূর্বক ধর্ষনের অভিযোগে দশজন গ্রেফতার

0
372

বিশেষ প্রতিনিধি : জন্মদিন উদযাপন,বিয়ে ও প্রেম ভালবাসার প্রলোভন দিয়ে এক স্কুল পুড়য়া ছাত্রীকে অপহরণ পূর্বক গণধর্ষন করার অভিযোগ উঠেছে। পুলিশ অপহরণের সহায়তাকারী ও ধর্ষনের অভিযোগে ১০ জনকে গ্রেফতার করেছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইমাউল হক তার কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সাথে প্রেস ব্রিফিংকালে এ তথ্য জানান। আসামীরা হচ্ছে, মাগুরা জেলার সদর উপজেলার মালঞ্চী গ্রামের রমজান আলীর ছেলে তাইজেল ইসলাম,যশোরের চৌগাছা উপজেলার ফুলসারা গ্রামের ফজলুর রহমানের ছেলে মুন্না হোসেন,যশোর শহরের বেজপাড়া আনসার ক্যাম্প পানির ট্যাঙ্কি মৃত আব্দুল মান্নানের ছেলে আশিকুর রহমান সাগর,পূর্ব বারান্দীপাড়ার এলাহী বক্সের ছেলে শাহরিয়ার হাসনাত,বকচর ষষ্টিতলা মসজিদ পাড়ার লিয়াকত আলীর ছেলে রাসেদুল ইসলাম,সদর উপজেলা হামিদপুর গ্রামের শামসুদ্দিন মোল্যার ছেলে ফরিদুজ্জামান, যশোরের শার্শা উপজেলার পাকশিয়া গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে সজিব রায়হান,বেনাপোল পোর্ট থানার গাজীপুর গ্রামের শাজাহানের ছেলে ইব্রাহিম,শহরের রায়পাড়ার মৃত ইসলাম সরদারের ছেলে ওসমান সরদার ও সদর উপজেলার রহমতপুর গ্রামের মৃত ইসমাইল খাঁর ছেলে আহম্মদ আলী।
ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় কালে জানান,ধৃতদের মধ্যে যশোর বিসিএমসি কলেজের শিক্ষার্থী রাসেদুল ইসলাম,শাহরিয়ার হাসনাত,মুন্না হোসেন, আশিকুর রহমান সাগর,আবাসিক হোটেল শাহরিয়ার ওসমান সরদার, আহম্মদ আলী ইব্রাহিম,আবাসিক হোটেল আরএস কর্মচারী সজিব রায়হান, ফরিদুজ্জামান ও তাইজেল  ইসলাম মাগুরা একটি কলেজের শিক্ষার্থী।
তিনি ধর্ষিতা ও তার পরিবার বর্গের উদ্ধৃতি দিয়ে জানান, ১০ম শ্রেনীর ছাত্রী কিশোরী (১৫) কে গত ২৪ এপ্রিল বিকেল ৪ টায় পৌর পার্কের কম্পিউটার শিখতে যায়। সেখান থেকে তাইজেল তার বন্ধু মুন্না,আশিকুর রহমান,শাহরিয়ার হাসনাত,রাসেদুল ইসলাম জন্মদিন উদযাপন,বিয়ে ও প্রেম-ভালবাসার প্রলোভন দিয়ে প্রতারণামূলক অপহরণ করে। ওই দিন কিশোরী বাড়িতে না ফেরায় তার নানা শহরের পুরাতন কসবা ঘোষপাড়ার বাসিন্দা  বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুজির এক পর্যায় ২৬ এপ্রিল কোতয়ালি মডেল থানায় সাধারণ ডাইরী করেন। যার নং ১৪৪৪ তারিখঃ ২৬/০৪/১৭ ইং। পরবর্তীতে ওই দিন বিকেলে শহরের আরএস আবাসিক রুম নং ৫১১ ফরিদুজ্জামান,সজিব রায়হান ও ২৫ এপ্রিল হোটেল আল-শাহরিয়ার  আবাসিক এর ১৫ নং কক্ষে ইব্রাহিম,ওসমান সরদার ও আহম্মদ আলীর সহযোগীতায়         উপর্যুপুরী ধর্ষন করে। ২৬ এপ্রিল রাত সাড়ে ৯ টায় কিশোরীকে নানা বাড়ির সামনে রেখে যায়। কিশোরীকে তার নানা জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে বিস্তারিত জানালে জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইমাউল হক বিষয়টি জানতে পারে তার নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে প্রধান নায়ক তাইজেল ইসলামসহ সহযোগী ১০ জনকে গ্রেফতার করে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার দুপুরে কোতয়ালি থানায় ১০ আসামীর বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here