যশোরে কিশোরীকে ধর্ষণের পর হত্যা, মা ও পরকীয়া প্রেমিক আটক

0
91

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোরের সদর উপজেলার কিসমত রাজাপুরে আমেনা (৯) নামে এক কিশোরীকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগে কিশোরীর মা রোজিনা বেগম (৩৫) ও তার পরকীয়া প্রেমিক মজনুর রহমানকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২৭ জুলাই) তাদেরকে আটক করা হয়।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর কিশোরী দাদী মর্জিনা খাতুন বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় বৃহস্পতিবার একটি হত্যা মামলা করেছেন।

মামলায় আসামি করা হয়েছে বাঘারপাড়া উপজেলার কলসি গ্রামের নূর জালালের ছেলে মজনুর রহমান (৪৪), নিহতের মা রোজিনা বেগম (৩৫) ও অজ্ঞাতনামা দুইজনকে ।

বাদী মর্জিনা খাতুন মামলার অভিযোগে উল্লেখ করেছেন, পাঁচ বছর আগে তার ছেলে মজনু খাঁ মালয়েশিয়া যায়। এসময় ছেলের বউ রোজিনা তাদের বাড়িতে বসবাস করে। ছেলে বিদেশ থাকায় মজনুর রহমানের সাথে পুত্রবধূ রোজিনার পরকীয়া প্রেম গড়ে ওঠে। প্রায় সময় মজনুর রহমান তাদের বাসায় আসতো। রোজিনার সাথে পরকীয়া প্রেমের পরে কু-নজর পড়ে ৯ বছর বয়সী আমেনার ওপর। এ ঘটনা আমেনা আমাকে বলায় আমি রোজিনাকে ঘটনা বললে রোজিনা উল্টো আমাকে শাসাতো। ঘটনার দিন ২৫ জুলাই বিকেল সাড়ে চারটার দিকে মজনুর রহমান কিশোরীকে ধর্ষণ করে। এরপর তাকে হত্যা করে। পরে ঘটনা আড়াল করতে আমেনার গলায় ফাঁস দিয়ে ঘরের আড়ায় ঝুলিয়ে দেয়। ঘটনাটি স্থানীয়দের সন্দেহ হলে পুলিশকে খবর দেয়া হয়। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে ময়নাতদন্ত করে।

কোতোয়ালি থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) এ কে এম শফিকুল আলম চৌধুরী বলেন, এ ঘটনায় নিয়মিত মামলার রুজু হয়েছে।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জুয়েল ইমরান বলেন, মামলার আসামি মজনুর রহমান ও রোজিনা বেগমকে পুলিশ আটক করেছে।