যশোরে গভীররাতে বিএনপির শীর্ষ চার নেতার বাড়িতে হামলার অভিযোগ

0
68

যশোরে বিএনপির শীর্ষ চার নেতার বাড়িতে ভাংচুর ও নরেন্দ্রপুর ইউনিয়নে কর্মী সমাবেশে হামলার অভিযোগ উঠেছে। শনিবার দুপুরে এ অভিযোগ তুলে প্রেসক্লাব যশোরে সংবাদ সম্মেলন করেছে জেলা বিএনপি।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি নেতারা দাবি করেন, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিভিন্ন এলাকায় বিএনপির প্রতিবাদ কর্মসূচি বাধাগ্রস্ত ও নেতাকর্মীদের মধ্যে ভীতিকর পরিবেশ সৃষ্টির জন্য এ হামলা করা হয়েছে।
তবে,জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে পাল্টা অভিযোগ করে বলা হয়েছে, বিএনপি নিজেরাই হামলার নাটক সাজিয়েছে। আগস্ট মাস আসলেই বিএনপি এ ধরনের অপপ্রচার চালায় বলে দাবি জেলা আওয়ামী লীগ নেতাদের।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির খুলনা বিভাগীয় ভারপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্য ইসলাম অমিত বলেন, শুক্রবার (২৬ আগস্ট) দিবাগত রাত দুইটা থেকে তিনটার মধ্যে অজ্ঞাত পরিচয়ের ২০ থেকে ২৫ জন দুর্বৃত্তরা মোটরসাইকেল ও প্রাইভেটকারযোগে প্রথমে তার বাড়িতে হামলা চালায়। এরপর পর্যায়ক্রমে উপশহরে সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু, সদস্য মিজানুর রহমান খান ও যুগ্ম আহব্বায়ক দেলোয়ার হোসেন খোকনের বাড়িতে হামলা চালানো হয়। এ সময় তারা অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ ও ইটপাটকেল ছুঁড়ে ঘরের জানালার গ্লাস ভাংচুর করে। তাদের ছোঁড়া ইটের টুকরা ঘরের ভেতরে চলে যায়। এ সময় তাদের পরিবারের সদস্যরা আতংকিত হয়ে পড়েন। মিজানুর রহমান খানের একটি প্রাইভেটকার ভাংচুর করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন, যশোর জেলা বিএনপি আহ্বায়ক অধ্যাপক নার্গিস বেগম, সদস্য সচিব সৈয়দ সাবেরুল হক সাবু, যুগ্ম আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেন খোকন, সাবেক কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক মফিকুল ইসলাম তৃপ্তি, বিএনপি নেতা অ্যাডভোকেট জাফর সাদিক প্রমুখ।

হামলার ঘটনায় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন বলেন, এটা বিএনপির সাজানো নাটক। প্রতিবছর আগস্ট মাস আসলে তারা এ ধরনের নাটক সাজিয়ে থাকে। এবারো তাই হয়েছে। তিনি বিএনপির এ নাটকের প্রতিবাদ জানান।