যশোরে গলায় ছুরি চালিয়ে তৃতীয় লিঙ্গের লাবনীকে হত্যা

0
18

হিজড়া দলের প্রতিপক্ষের সাথে পূর্বশত্রুতায় হত্যা!
নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোরে সিনেমার স্টাইলে লাবনী (৩৫) নামে এক তৃতীয় লিঙ্গের (হিজড়া) একজনকে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার সকাল ৮টার দিকে যশোর-ছুটিপুর সড়কের হালসা ব্রিজের কাছে এই ঘটনা ঘটে। নিহত লাবনীর বাবা করিম মিস্ত্রী। যশোর শহরের বেজপড়ার বাসিন্দা।

পুলিশ ও লাবনীর সহকর্মী নাজমা ও সেলিনা জানান, লাবনী, নাজমা ও সেলিনা একসাথে যশোর শহরের ধর্মতলায় হিজড়া সরদার পাঞ্জজারির অধীনে ছিলেন। মন ও মতের মিল না হওয়ায় তারা তিনজন পাঞ্জজারির থেকে আলাদা হয়ে যান। এ নিয়ে পাঞ্জজারি ও তার লোক মুন্নি, বর্ষা, ও সনিয়া প্রায়ই সময় তাদের হত্যার হুমকি দিতেন। শনিবার সকালে তারা তিনজন গ্রামে যান। হালসা ব্রিজের কাছে পৌঁছালে মুখে মাস্ক পরা দুইজন এসেই লাবনীর গলায় ছুরি দিয়ে পোছ দেয়। এসময় লাবনী রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে পড়ে যান। স্থানীয়দের সহযোগিতায় লাবনীকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ডা. আহম্মেদ তারেক শামস বলেন, গুরুতর অবস্থায় তাকে হাসপাতেলে আনা হয়। দ্রুত তাকে অপারেশন থিয়েটারে পাঠানো হয়। কিন্তু অপারেশনের টেবিলে তিনি মারা যান। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণেই তার মৃত্যু হয়েছে।

এ ব্যাপারে যশোর জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখায় (ডিবি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি রুপন কুমার সরকার বলেন, ঘটনাস্থল পুলিশ ও ডিবির একাধিক টিম পরিদর্শন করেছে। কি কারণে কেনো এই হত্যাকান্ড এবং কারা ঘটিয়েছে পুলিশ তা তদন্ত করে দেখছে।

যশোর কোতোয়ালী থানার ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, এরা বিভিন্ন অপরাধের সাথে যুক্ত থাকে। কী কারণে হত্যা সংঘটিত হয়েছে, তা উদঘাটনে সময় লাগবে।