যশোরে ছাত্রীমেস থেকে ৩ বস্তা বোমা উদ্ধার

0
366
bty

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোর শহরের খড়কী এলাকা থেকে তিন বস্তা তাজা বোমা উদ্ধার করেছে পুলিশ। প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীদের মোকাবেলা করতে এগুলো জড়ো করা হয়েছিল বলে স্থানীয়দের ধারণা। আজ রাত পৌনে নয়টার দিকে পুলিশ বোমাগুলো উদ্ধার করে।

৩ বস্তায় শতাধিক বোমা পারে বলে প্রাথমিক তথ্যে জানা গেছে। তবে ঘটনাস্থলে সন্ত্রাসীরা থাকলেও পুলিশ তাদের কাউকে আটক করতে পারেনি।

ঘটনাস্থল থেকে যশোর কোতয়ালী থানার এস আই সুকুমার কুন্ডু বলেন, এলাকার আধিপাত্ত বিস্তারকে কেন্দ্র করে এ বোমাগুলো মজুদ করা হয়েছে। তিনি বলেন ৩ বস্তায় সতাধীক বোমা রয়েছে। তিনি বলেন খড়কীর শাহ আব্দুল করিম রোডের বাইলেনে (এফডিসি পাড়া নামে পরিচিত) মাস্টার মাহাবুবুর রহমানের বাড়ি থেকে বোমা গুলো উদ্ধার করা হয়।

মাহবুবুর মাস্টার বলেন, ‘আমার বাড়ির নিচতলায় ছাত্রী মেস। সেখানে অবস্থানরত ছাত্রীরা আজ রাত আটটার দিকে দেখতে পায়, কয়েক যুবক বাড়ির মধ্যে ব্যাগ হাতে ঢুকে পড়েছে। ব্যাগের মধ্যে বোমা আছে বলেই ছাত্রীদের কাছে মনে হয়। তারা আমাকে ফোনে বিষয়টি জানায়। আমি পুলিশকে অবহিত করি।’

‘‘ছাত্রীরা আমাকে আরো জানায়, বোমা বহনকারী যুবকরা তাদের বলেছিল, ‘আপনাদের কোনো ভয় নেই। আপনারা ঘরে থাকেন।’ কিন্তু ছাত্রীরা ভয় পেয়ে আমাকে ফোনে বিষয়টি জানিয়ে দেয়,।

খবর পেয়ে পুলিশের ৮-১০টি টিম ঘটনাস্থলে যায়। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাহউদ্দিন শিকদারের নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক পুলিশ ঘটনাস্থলে অবস্থান করছিল। পুলিশ কর্মীরা ব্যাগ থেকে বোমাগুলো নিয়ে বালতির পানিতে রাখছিলেন।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, ‘৫-৬ জন সন্ত্রাসী বোমাগুলো জড়ো করেছিল। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তারা দৌঁড়ে পালিয়ে যায়। সে কারণে কাউকে আটক করা যায়নি।’
উদ্ধার করা বোমাগুলো বালতির পানিতে ভিজিয়ে থানায় নেওয়া হচ্ছে ।

এর আগে সন্ধায় যশোর শহরের রেলগেট কলাবাগান রেললাইনের পাশে কানা বাসারের বাড়ির সামনে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বোমাবাজীর ঘটনা ঘটে। বোমাবাজির ঘটনায় কোন হতাহতের ঘটনা না ঘটলেও স্থানীয় লোকজনের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here