যশোরে জব্দ সেই সরকারি ভর্তুকির ৭০ টন টিএসপি সার ভেজাল প্রমাণিত

0
34
Exif_JPEG_420

নিজস্ব প্রতিবেদক : চট্টগ্রামের ট্রিপল সুপার ফসফেট (টিএসপি) কমপ্লেক্স লিমিটেডের কারখানা থেকে যশোরে পাঠানো সরকারি ভর্তুকির সেই ৭০ মেট্রিক টন টিএসপি সার পুরোটাই ভেজাল প্রমাণিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার টিএসপি কমপ্লেক্স লিমিটেডের এমডির কাছে প্রতিবেদন জমা দিয়েছে তদন্ত কমিটি। এর আগে ভেজাল সন্দেহে ওই সার গুদামে ঢুকতে দেয়নি যশোরের বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশনের (বিসিআইসির) বাফার গুদাম কর্তৃপক্ষ। রোববার তদন্ত কমিটির সদস্যরা জব্দকৃত সার পরিদর্শন ও নমুনা সংগ্রহ করে। এ বিষয়ে তদন্ত কমিটির প্রধান টিএসপির উপ-প্রধান রসায়নবিদ রেজাউল ইসলাম সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ল্যাব পরীক্ষায় সার পুরোটাই প্রমাণিত হয়েছে।

জানা গেছে, দক্ষিণাঞ্চলে যুগোপযোগী কৃষি উন্নয়ন, কৃষি মাটি ও উৎপাদনের সঠিক গুণগত মানসম্পন্ন সার কৃষকের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে যশোর শহরতলি বাহাদুরপুরে অবস্থিত বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশনের (বিসিআইসির) বাফার গুদাম রয়েছে। ১০ হাজার মেট্রিক টন ধারণ ক্ষমতা এই গুদামে রাখা হয় চট্টগ্রামসহ দেশে সরকারিভাবে উৎপাদিত সার। এই সার গুদাম থেকে যশোর, ঝিনাইদহ, নড়াইল, মাগুরা, মেহেরপুর, চুয়াডাঙ্গা ও কুষ্টিয়া জেলার ৪৬০ জন ডিলারের মাধ্যমে মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের কাছে ভর্তুকি মূল্যে বিক্রয় করা হয়।
চলতি বছরের ৯ জানুয়ারি চট্টগ্রামের মাঝিরঘাটের পরিবহণ ঠিকাদার মেসার্স সৈয়দ এন্টারপ্রাইজকে যশোর বাফার গুদামে সরকারি ভর্তুকির সার পরিবহণের কার্যাদেশ দেয় টিএসপি কমপ্লেক্স। এরপর থেকে সার পরিবহণ করে আসছিল প্রতিষ্ঠানটি। সেই ধারাবাহিকতায় ১৭ মার্চ চট্টগ্রামের টিএসপি কমপ্লেক্স থেকে ১৪ লাখ টাকা মূল্যে ৭০ মেট্রিক টন (১৪শ’ বস্তা) সার ট্রাভেলস কোম্পানি চট্টগ্রামের সৈয়দ এন্টারপ্রাইজ ৫ ট্রাকে লোড দিয়ে যশোরে আনে। এ সময় ট্রাকে বোঝাই সার দেখে যশোর বাফার গুদাম কর্তৃপক্ষের সন্দেহ হয়।

১৮ মার্চ সার খালাস বন্ধ করে চট্টগ্রামের টিএসপি কমপ্লেক্সে লিখিত আবেদন করলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ট্রাকসহ ৭০ মেট্রিক টন সার জব্দ করার নির্দেশ দেয়। এরপর ২০ মার্চ টিএসপি কমপ্লেক্সের উপপ্রধান রসায়নবিদ রেজাউল হক, ব্যবস্থাপক (উৎপাদন) শফিকুল কবীর এবং বিসিআইসির উপপ্রধান হিসাবরক্ষক নির্মল কুমার দত্ত যশোরের বাফার গুদামে আসেন। তারা তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনা করেন।

চট্টগ্রাম থেকে আসা কাগজপত্র, ট্রাভেলস এজেন্সির কাগজপত্র পরীক্ষা করেন। এছাড়া সব ট্রাকের সারের নমুনা সংগ্রহ করেন। সেই নমুনা টিএসপি কারখানার নিজস্ব ল্যাব ও যশোর মৃত্তিকা সম্পদ গবেষণা ইন্সটিটিউটের ল্যাবে পরীক্ষা করা হয়। দুটি ল্যাবের পরীক্ষায় সার ভেজাল প্রমাণিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার তদন্ত কমিটি প্রতিবেদন জমা দিয়েছে।