যশোরে নবমুসলিম নারী হত্যাকান্ডের ঘটনায় স্বামীসহ ৩ জনের নামে মামলা

0
279

বিশেষ প্রতিনিধি : সদর উপজেলার পতেঙ্গালী ও মালঞ্চী মুছার বান্ধাল নামক স্থান থেকে তরুনী পাবর্তী রায় ওরফে নুসরাত জাহান (২৪) হত্যাকান্ডের ঘটনায় কোতয়ালি মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। নিহতর মাতা যমুনা দাস বাদি হয়ে ৩ জনের নামসহ অজ্ঞাতনামা ২/৩জনের বিরুদ্ধে এজাহার দায়ের করেছেন। আসামীরা হচ্ছে,যশোর সদর উপজেলার মাহিদিয়া প্রাইমারী স্কুলের পাশে সিরাজুল ইসলামের ছেলে নিরব হোসেন ওরফে রাব্বি,মাহিদিয়া পশ্চিমপাড়ার লিয়াকত হোসেনের ছেলে বিপুল হোসেন ও শহরের শংকরপুর হিজড়া পাড়ার মিলন হিজড়া। হত্যাকান্ডের জড়িত এজাহার নামীয় আসামী কাউকে পুলিশ গত ২৪ ঘন্টায় গ্রেফতার করতে পারেনি।
যশোরের মনিরামপুর উপজেলার শ্যামকুড় গ্রামের বর্তমানে যশোর শহেরর আরএনরোড মহল্লা জাহী মার্কেটের পিছনে জনৈক মতিয়ার রহমানের বাড়ির ভাড়াটিয়া শ্রী অধির দাসের স্ত্রী যমুনা দাস কোতয়ালি মডেল থানায় দায়েরকৃত এজাহারে বলেছেন,তার মেয়ে পার্বতী রায়কে ৩ মাস পূর্বে নিরব হোসেন রাব্বি ধর্ম ত্যাগ করিয়ে বিয়ে করে। পাবর্তী রায়ের নাম নুসরাত জাহান হিসেবে মুসলমান ধর্মের অনুসারী করা হয়। বিয়ের পর রাব্বি নুসরাত জাহানকে ঝুমঝুমপুর চান্দের মোড়ের এক বাড়িতে ভাড়া রেখে সংসার করতো। সংসার জীবনে তাদের মধ্যে নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। নুসরাত জাহান কালীপূজা উপলক্ষে তার মায়ের কাছে শহরের আরএনরোডের বাড়িতে চলে আসে। বৃহস্পতিবার মায়ের সাথে শহরের সুধীর বাবুর কাঠগোলায় কালীপূজা দেখতে আসে। সেখানে নিরব,হোসেন রাব্বি ও বিপুল হোসেন এবং হিজড়া মিলনের সাথে দেখা। নিরব হোসেন রাব্বি ও বিপুল হোসেন তাদের ব্যবহৃত কালো রংয়ের মোটর সাইকেল যোগে পূজা দেখার কথা বলে নুসরাত জাহানকে নিয়ে যায়। সন্ধ্যারাত রাত পৌনে ৮ টায় নিয়ে যাওয়ার পর নুসরাত জাহান ওরফে পাবর্তী রায়ের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন বন্ধ পান তার মাতা। বিষয়টি ফিরোজা তার স্বামী অধির দাসকে জানান। তারা দু’জনে মিলে মাহিদিয়া গ্রামে রাব্বির বাড়িতে খোঁজ খবর নিতে গেলে সেখানে তার চাচা বলেন কেউ আসেনি এখানে। পরবর্তীতে পরের দিন শুক্রবার ২০ অক্টোবর সকালে লোকমারফত শ্রী অধির দাস খবর পান পতেঙ্গালী ও মালঞ্চী মুছা বান্ধাল নামক স্থানে রাস্তায় এক নারীর গলা কাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। খবর পেয়ে হাসপাতালের মর্গে গিয়ে যমুনা দাস মেয়ের লাশ সনাক্ত করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কোতয়ালি মডেল থানার এসআই মোকলেছুজ্জামান জানান, পাবর্তী রায় ওরফে নুসরাত জাহান হত্যাকান্ডের সাথে যারা জড়িত তাদেরকে গ্রেফতারে অব্যাহত অভিযান চালানো হচ্ছে। হত্যাকান্ডের কারণ উদঘাটন এখনও হয়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here