যশোরে নড়াইলের নড়াগাতি থানার নারী ওসির স্বামীর মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

0
352

বিশেষ প্রতিনিধি : বিনা চিকিৎসায় যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের করোনী কেয়ার ইউনিটে নারী ওসি রোকশানা খাতুনের স্বামী আহসানুল ইসলাম (৪৫) মৃত্যু বরণ করার অভিযোগে ৩ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে আগামী ৫ কর্ম দিবসের মধ্যে প্রকৃত ঘটনা তদন্ত করে প্রতিবেদন দালিখ করতে বলা হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রধান করা হয়েছে করোনারী কেয়ার ইউনিটের কার্ডিওলজি বিভাগের প্রধান জয়ন্ত কুমার পোদ্দার। সদস্য সচিব করা হয়েছে অত্র হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আরিফ আহমেদ। এছাড়া,কমিটির সদস্য করা হয়েছে জুনিয়র কনসালটেন্ট ডাক্তার মধুসূদন পাল।
নড়াইল জেলার নড়াগাতি থানার অফিসার ইনচার্জ রোকশানা খাতুনের স্বামী আহসানুল ইসলাম গত ৯ এপ্রিল সকাল সাড়ে ৬ টায় বুকে ব্যথা জনিত রোগে যশোর জেনারেল হাসপাতালের জরুরী বিভাগে আসলে জরুরী বিভাগে কর্মরত ডাক্তার এম আব্দুর রশিদ সকাল ৭ টা ৩৫ মিনিটে ভর্তি করে হাসপাতালের অভ্যন্তরে করোনারী কেয়ার ইউনিটে পাঠান। সেখানে আহসানুল ইসলাম চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল ৮ টা বেজে ২০ মিনিটে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষনা করে। আহসানুল ইসলাম পাবনা সুজানগর উপজেলার মানিকদিয়া গ্রামের বাসিন্দা ও তিনি যশোর বেনাপোল রেলওয়েতে কর্মরত ছিলেন। আহসানুল ইসলামের মৃত্যুকে অবহেলা জনিত বলে তার স্ত্রী নড়াগাতি থানার অফিসার ইনচার্জ রোকশানা খাতুন অভিযোগ করলে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক দিলীপ কুমার রায় সাংবাদিকদের জানান, মৃত্যু সংক্রান্ত অভিযোগে ৩ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটি আগামী ৫ কর্ম দিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে। প্রতিবেদনে আহসানুল ইসলামের মৃত্যু অবহেলা জনিত প্রমানীত হলে অবহেলা ও গাফিলতির কারণে ওই দিন দায়িত্বরত সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। এদিকে নিহতর পরিবারের লোকজন জানান,চিকিৎসকের বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটির কর্তা ও সদস্য সচিব এবং সদস্য করা হয়েছে চিকিৎসক। চিকিৎসকগন প্রতিবেদন কখনও তাদের সহকর্মীর বিরুদ্ধে দেবেন এটা মনে হয়?