যশোরে পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে দূবৃর্ত্তদের হামলা মারপি টাকা লুটের ঘটনায় মামলা গ্রেফতার-২

0
234

বিশেষ প্রতিনিধি: পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে চিহ্নিত দূবৃর্ত্তরা সদর উপজেলার ফতেপুর বিধাব সুফিয়া বেগমের বাড়িতে হামলা চালিয়ে মারপিট ও নগদ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় কোতয়ালি মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ এজাহার নামীয় দু’জনকে গ্রেফতার করেছ। মামলায় আসামী করা হয়েছে ৫ জনকে। আসামীরা হচ্ছে, ফতেপুর গ্রামের মাজেদ খাঁর ছেলে শহিদ,তৌহিদ,ওয়াজেদ খাঁর ছেলে সহিদুল ইসলাম,মহাতাব খাঁর ছেলে মেজের ও হাজের আলীর ছেলে আব্দুল হাই মোল্লা। এর মধ্যে শহিদ ও আব্দুল হাই মোল্লাকে পুলিশ গ্রেফতার সোমবার আদালতে সোপর্দ করেছে।
সদর উপজেলার দাইতলার আফছার মোল্যার ছেলে সাহিদুর ইসলাম রোববার দুপুরে কোতয়ালি মডেল থানায় দায়েরকৃত এজাহারে বলেছেন, শহিদ ও তৌহিদের কাছে সাহিদুর রহমানের স্ত্রীর বড় বোন সুফিয়া বেগম টাকা পায়। উক্ত টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে সুফিয়া বেগমের সাথে আসামীদের বিরোধ চলে আসছে। সাহিদুর ইসলাম কাঁচামালের ব্যবসায়ী। ১১ জুন তার হালখাতা থাকায় তিনি কার্ড বিতরনে খুব ব্যস্ত। গত ৮ জুন সে হালখাতার কার্ড বিতরণ করতে গিয়ে অসুস্থ্য হয়ে পড়লে সন্ধ্যায় সুফিয়া বেগমের বাড়িতে আশ্রয় নেয়। সেখানে বারান্দায় অবস্থান কালে উক্ত আসামীরা অর্তকিতভাবে সুফিয়া বেগমের বাড়িতে এসে বলে তাদের মধ্যে খারাপ সম্পর্ক বিষয়টি এলাকাবাসীকে জানাবে। পুনরায় সুফিয়া বেগম টাকা চাইলে তাদের ঘটনা এলাকাবাসীদের মধ্যে প্রচার করবে বলে হুমকী ধামকী দেয়। সাহিদুর ইসলাম প্রতিবাদ করলে তাকে মারপিটসহ সুফিয়া বেগমকে মারপিট করে সাহিদুর রহমানের কাছ থেকে নগদ ৭ হাজার ৩শ’ ৫০ টাকা ছিনিয়ে নেয়। এ সময় সুফিয়া বেগমের শাড়ী ধরে টানাটানি করে। গুরুতর আহত অবস্থায় সাহিদুর ইসলাম ও সুফিয়া বেগমকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। #