যশোরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুই জনের মৃত্যু

0
75

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুজনের মৃত্যু ও পাঁচজন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২২ জুন) দুপুরে যশোর-খুলনা মহাসড়কের রূপদিয়া ও খাজুরা-কালীগঞ্জ সড়কের যাদবপুরে দুর্ঘটনা দুটি ঘটে।

নিহতরা হলেন পিকআপচালক রাজীব তালুকদার (৩০) ও মোটরসাইকেলচালক আশরাফুল ইসলাম (৪০)। রাজীব বরিশালের বাবুগঞ্জের আব্দুল হাকিম তালুকদারের ছেলে ও আশরাফুল বাঘারপাড়া উপজেলার পুকুরিয়া গ্রামের আলতাফ হোসেনের ছেলে।

নওয়াপাড়া হাইওয়ে থানা পুলিশের ওসি আব্দুল হামিদ বলেন, বৃহস্পতিবার দুপুর একটার দিকে যশোরের রূপদিয়া শহীদ স্মৃতি কলেজের সামনে যশোর-খুলনা মহাসড়কের বটতলা মোড়ে যশোর থেকে খুলনাগামী একটি পিকআপ এবং খুলনা থেকে যশোরগামী ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সময় একটি লরিও এসে ধাক্কা দেয়। এতে পিকআপ চালক রাজীব মারা যান। এ সময় আহত হয়েছেন আরও চার জন। এর মধ্যে দুজনকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকি দুজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। দুর্ঘটনায় তিনটি গাড়িই দুমড়ে-মুচড়ে গেছে।

যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি তাজুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। সড়কের ওপর দুমড়ে-মুচড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া গাড়িগুলো সরিয়ে ফেলা হয়েছে। ফলে মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

এদিকে, বৃহস্পতিবার দুপুরে যশোরের বাঘারপাড়ার যাদবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে দুই মোটরসাইকেল ও ইটভাটার মাটিবাহী ট্রলির ত্রিমুখী সংঘর্ষে আশরাফুল ইসলাম নামে এক মোটরসাইকেল চালক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় গুরুতর আহত অবস্থায় তার স্ত্রী চম্পা খাতুনকে (৩০) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল আজিজ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল আজিজ বলেন, আশরাফুল তার স্ত্রীকে নিয়ে মোটরসাইকেলে খাজুরা বাজারে যাচ্ছিলেন। বেলা সাড়ে ১২টার দিকে যাদবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি মোটরসাইকেলের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। এ সময় আশরাফুল মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা ইটভাটার মাটিবাহী ট্রলির সঙ্গে আঘাত পেয়ে মারাত্মকভাবে আহত হন। স্থানীয়রা আশরাফুল ও তার স্ত্রী চম্পাকে উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আশরাফুলকে মৃত ঘোষণা করেন।

বাঘারপাড়া থানার ওসি শাহাদাত হোসেন বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।