যশোরে বাসের চাপায় নানী ও নাতনি নিহত, আহত ২

0
67

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোরে যাত্রীবাহী বাসের চাপায় নানী ও নাতনি নিহত এবং আরও দু’জন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে যশোরের ধর্মতলা রেলক্রসিংয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন, যশোর সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুর গ্রামের গফুর মোড়লের স্ত্রী জাহানারা বেগম (৬০) ও সিরাজসিংহা গ্রামের সুজায়েত সরদারের মেয়ে সুমাইয়া খাতুন (১৬)। সম্পর্কে তারা নানী-নাতনি। ঘাতক বাসটিকে আটক করা হলেও এর চালক ও সহকারী পালিয়ে গেছে। আহতরা হলেন, সিরাজসিংহা গ্রামের লিটন সরদারের মেয়ে তুলি (১২) ও ভ্যান চালক একই গ্রামের সাধন দাসের ছেলে উত্তম দাস।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার দুপুরে তিনযাত্রী নিয়ে ভ্যানচালক উত্তম দাস চাঁচড়া থেকে শহরের দিকে আসছিলেন। ভ্যানটি ধর্মতলা রেলক্রসিংয়ে পৌঁছালে বাসের ধাক্কায় উল্টে যায়। এ সময় জাহানারা বেগম ও সুমাইয়া খাতুন রাস্তায় পড়ে গেলে বাস তাদের চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়। আহত হন ভ্যানচালক উত্তম ও যাত্রী তুলি। আহত দু’জনকে উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার এবং বাসটিকে আটক করে পুলিশ লাইনে নিয়ে যায়। তবে এর চালক ও সহকারী পালিয়ে গেছে।
যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার ডিউটি অফিসার এসআই খালিদ জানিয়েছেন, নিহত দু’জন নানী ও নাতনি। পুলিশ বাসটি আটক করলেও এর চালক-সহকারী পালিয়ে গেছে।