যশোরে ভ্রুন হত্যার অভিযোগে পুলিশ সদস্যর বিরুদ্ধে আদালতে মামলা

0
79

নিজস্ব প্রতিবেদক : ভ্রুন হত্যার অভিযোগে পুলিশ সদস্য স্বামী, শ্বশুর ও শাশুড়ির বিরুদ্ধে যশোর আদালতে মামলা করেছেন এক গৃহবধূ। মঙ্গলবার যশোর সদরের নুরপুর গ্রামের খলিলুর রহমানের ছেলে আয়েশা সিদ্দিক বাদী হয়ে এ মামলা করেছেন। জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ইমরান আহম্মেদ অভিযোগের তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দেয়ার আদেশ দিয়েছেন কোতয়ালি থানার ওসিকে।
আসামিরা হলো, যশোর পুলিশ সুপারের বডিগার্ড জাহাঙ্গীর আলম ও তার পিতা চুয়াডাঙ্গার জীবননগরের গঙ্গাদাসপুর গ্রামের শরিফুল ইসলাম এবং মা কুলসুম খাতুন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাদীর আইনজীবী রাজু আহমদ।
মামলার অভিযোগে জানা গেছে, ২০২১ সালের ৬ ডিসেম্বর আসামি জাহাঙ্গীর আলম বিয়ে করেন আয়েশা সিদ্দিককে। বিয়ের পর জাহাঙ্গীর আলমকে যৌতুক হিসেবে নগদ ১ লাখ টাকা, স্বর্ণলংকার দেয়া হয়। সংসার করা কালে আয়েশা সিদ্দিক অন্তসত্ত হয়। বিষয়টি জানতে পেরে জাহাঙ্গীর আলম সন্তান নষ্টের জন্য ওষুধ কিনে দেন এবং খেয়ে নেয়ার তাগিদ দেন। আয়েশা সিদ্দিক ওষুধ না খেয়ে ওষুধ খেয়েছে বলে তার স্বামীকে জানান। জাহাঙ্গীর বিষয়টি বুঝতে পেরে অপর আসামিদের পরামর্শে সরবতের মধ্যে ওষুধ দিয়ে আয়েশা সিদ্দিককে খাওয়ায় দেন। ফলে আয়েশা সিদ্দিকের ব্লিডিং শুর হয়ে গর্ভের সন্তান নষ্ট হয়ে গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে পড়েন। এরপর জাহাঙ্গীর মোবাইলে তাকে তালাক দিবে হুমকি দেন। তিনি কিছুটা সুস্থ্য হয়ে আদালতে এ মামলা করেছেন।