যশোরে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতে ১২শ’ কেজি জেলিপুশকৃত চিংড়ি ধ্বংস

0
16

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোরে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে ১২শ’ কেজি অস্বাস্থ্যকর জেলিপুশকৃত চিংড়ি মাছ ধ্বংস ও ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে। মঙ্গলবার মধ্যরাতে যশোরের শহরের মণিহার এলাকায় এই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়।
র‌্যাব-৬, সিপিসি-৩, যশোর ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার লে. কমান্ডার এম নাজিউর রহমান জানান, গোপন সূত্রে তারা জানতে পারেন, ইনজেকশনের মাধ্যমে জেলি পুশ করে ওজন বৃদ্ধি করে বিপুল পরিমান চিংড়ি মাছ নিয়ে শ্যামনগর থেকে শেরপুরে যাচ্ছে হিমেল সীমান্ত পরিবহনের একটি বাস। এই সংবাদের সত্যতা যাচাই ও আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মঙ্গলবার মধ্যরাতে র‌্যাব-৬, সিপিসি-৩, যশোর ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার লে. কমান্ডার এম নাজিউর রহমান ও স্কোয়াড কমান্ডার এএসপি মো. নাজমুল হক এবং যশোর সদর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা সাইদুর রহমান রেজা’র সমন্বয়ে একটি আভিযানিক দল শহরের মনিহার মোড়ে অস্থায়ী চেকপোস্ট স্থাপন করে। সেখানে হিমেল সিমান্ত পরিবহনের বাস থামিয়ে চিংড়ি মাছে ইনজেকশনের মাধ্যমে জেলি পুশ করা হয়েছে কিনা তা পরীক্ষা করা হয়।
এ সময় ওই বাস হতে ককসিট ভর্তি ১২শ’ কেজি চিংড়ি মাছ ইনজেকশনের মাধ্যমে জেলি পুশ করা প্রমাণ পাওয়া যায়। চিংড়ি মাছে অস্বাস্থ্যকর জেলি পুশ করার প্রমাণ পাওয়ায় মৎস্য ও মৎস্য পণ্য (পরিদর্শন ও মান নিয়ন্ত্রণ) বিধি মালা ১৯৯৭ (সংশোধিত বিধিমালা ২০০৮) এর বিধি ৪(৪), ৫ (৯) লংঘন করায় ওই বিধিমালার বিধি ৪ (৫), ৫ (১০) এর প্রদত্ত ক্ষমতা বলে ককসিট ভর্তি ১২শ’ কেজি চিংড়ি জব্দ করা হয়। একইসাথে হিমেল সীমান্ত পরিবহনের মালিক অনিল বাচ্চুকে ৩০ হাজার টাকা অর্থদন্ড করা হয়েছে। এছাড়াও ভবিষ্যতে অস্বাস্থ্যকর জেলি পুশ চিংড়ি পরিবহন থেকে বিরত থাকার জন্য সতর্ক করা হয়েছে।