যশোরে শিক্ষা বোর্ডে এবার এইচ এস সিতে উচ্চতর গণিত ৫০ নম্বরের পরীক্ষায় ৬৩!

0
301

নিজস্ব প্রতিবেদক : সাতক্ষীরার কলারোয়া সরকারি কলেজের এক শিক্ষার্থীর রেজাল্ট শিটএবার উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার ফলাফলে এক শিক্ষার্থী উচ্চতর গণিত দ্বিতীয়পত্রের রচনামূলক অংশে ৫০ নম্বরের মধ্যে ৬৩ নম্বর পেয়েছে। ২৩ জুলাই যশোর বোর্ডের প্রকাশিত ফলাফলে সাতক্ষীরার কলারোয়ায় এক পরীক্ষার্থীর মার্কশিটে এমনটাই দেখা গেছে। সাতক্ষীরা কলারোয়া সরকারি কলেজ থেকে এবার এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে সুদিপ্ত কুমার সরদার নামে ওই শিক্ষার্থী এ গ্রেডে (৪.১৭) উত্তীর্ণ হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে- সাতক্ষীরা কলারোয়া সরকারি কলেজে ছাত্র সুদিপ্ত কুমার সরদার ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের নিয়মিত শিক্ষার্থী হিসেবে যশোর শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ২০১৭ সালের এইচএসসি পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগ থেকে অংশ নেয়। তার রোল নং- ৪০৮৬৩৯, রেজি:নং- ১২১৩৬৭৪০৭০। তার বাবার নাম পূর্ণ চন্দ্র সরদার, মায়ের নাম প্রমিলা রানী সরদার।

গত ২৩ জুলাই বোর্ডের প্রকাশিত ফলাফলে ওই শিক্ষার্থী উচ্চতর গণিত বিষয়ের দ্বিতীয়পত্রের রচনামূলক (সৃজনশীল) অংশে ৬৩ নম্বর পেয়েছে। অথচ ওই অংশের মোট নম্বর ৫০। অর্থাৎ ৫০ নম্বরের মধ্যে পেয়েছে ৬৩ নম্বর! সেখানে নৈব্যক্তিক অংশে ২৫ নম্বরের মধ্যে সে পেয়েছে ৮ নম্বর এবং ২৫ নম্বরের ব্যবহারিক অংশে পেয়েছে ২৪ নম্বর। দ্বিতীয়পত্রের ওই ৬৩ নম্বরসহ উচ্চতর গণিতে প্রথম ও দ্বিতীয়পত্র মিলিয়ে সে মোট ১৬৪ নম্বর পেয়েছে। অর্থাৎ উচ্চতর গণিতে সে ‍এ প্লাস পেয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে ইতোমধ্যে নানা গুঞ্জনের সৃষ্টি হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ওই মার্কশিটের স্ক্রিনশট প্রকাশিতও হয়েছে। যশোর শিক্ষাবোর্ডের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ফলাফলেও একই চিত্র- ৫০ নম্বরের মধ্যে ৬৩!

এ বিষয়ে কলারোয়া সরকারি কলেজের গণিত বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক শাহনেওয়াজ করিম বলেন, ‘উচ্চতর গণিতের দ্বিতীয়পত্রের মোট ১০০ নম্বরের মধ্যে রচনামূলক অংশে ৫০ নম্বর, নৈব্যক্তিক অংশে ২৫ ও ব্যবহারিক অংশে ২৫ নম্বর। সেখানে রচনামূলক অংশে ৬৩ নম্বর প্রাপ্তের বিষয়টি বোর্ডের ভুল হয়ে থাকতে পারে।’

সাতক্ষীরা কলারোয়া সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর বাসুদেব বসু বলেন, ‘বিষয়টি বোর্ডের এখতিয়ার। এ বিষয়ে তার কোনও বক্তব্য নেই।’

এদিকে, ৫০ নম্বরের মধ্যে ৬৩ নম্বর প্রাপ্তিকে বোর্ড কিংবা সংশ্লিষ্ট পরীক্ষকের ভুল বলে মনে করছেন শিক্ষা সংশ্লিষ্ট অনেকে। তাদের ধারণা হয়তোবা ৩৬ উল্টে গিয়ে ৬৩ হয়ে থাকতে পারে। তবে ওই বিষয়ে মোট যোগফল করা হয়েছে প্রাপ্ত ৬৩ নম্বর দিয়েই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here