যশোরে সেবিকার সাথে রোগীস্বজনের ধাক্কাধাক্কি, আটক এক

0
273

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোরে ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে মেডিসিন বিভাগে সিনিয়র স্টাফ নার্স ফাতেমা খাতুনের অসৌজন্যমুলক আচারনে রুগীর স্বজন হাসানুর রহমান টিটুলের সাথে ধস্তাধস্তির ঘটনার অভিযোগ উঠেছে৷ এঘটনায় পুলিশ টিটুলকে হেফাজতে নেয়।

হাসপাতাল সূত্রে জানাযায়, যশোর সদর উপজেলার বোলপুর গ্রামের মুকুল হোসেনের ছেলে নিয়ম হোসেন (১৮) পারিবারিক কলহের জের ধরে রোববার রাত সাড়ে ৮টায়, কিটনাশক পান করে গুরুতর অসুস্থ হয়। স্থানিয়রা তাকে উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসে৷ জরুরী বিভাগের ডাক্তার হাবিবুর রহমান ভূইয়া, ষ্টোমাক ওয়াস করিয়ে ওপিসি পয়জোনিং রুগী হিসাবে তাকে ভর্তি করে মেডিসিন বিভাগে চিকিৎসায় পাঠান৷

নিয়ম হোসেনের মা আকলিমা খাতুন জানান, তার ছেলেকে হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের সুইপার দিলিপ, গোপনাঙ্গে ক্যাথেটার পরাবার সময় নিয়ম চিল্লাপাল্লা করে। এসময় দাদি সালেহা বেগম পাশ থেকে নিয়মের কাছে আসতে গেলে পাশে থাকা সিনিয়র স্টাফ নার্স ফাতেমা খাতুনের অসৌজন্যমুলক আচরনে উভয়ে কথা কাটাকাটি হয়৷ এসময় নিয়মের স্বজন টিটুল এগিয়ে এসে সেবিকার সাথে ধস্তাধস্তিতে জড়িয়ে পড়ে৷

সিনিয়র স্টাফনার্স ফাতেমা খাতুন তিনি ও একই কথা জানিয়ে বলেন তাকে রোগির স্বজন টিটুল ধাক্কা দিয়েছে।ওই সময় তিনি হাসপাতালের কর্তব্যরত পুলিশের সাহায্য নেয়।এরপর কোতয়ালী থানার এ এস আই মিজানুর রহমান টিটুল কে থানা হেফাজতে নিয়ে যায়৷

জানতে চাইলে হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাক্তার একেএম কামরুল ইসলাম বেনু বলেন। ঘটনার পর তিনি ঘটনাস্হলে এসেছিলেন। পুলিশ একজনকে আটক করেছে। জরুরী বিভাগের ইনচার্জ ডাক্তার কল্লোল কুমার সাহা কে থানায় লিখিত অভিযোগ পাঠাবার জন্য বলা হয়েছে৷
এঘটনায় ওই রাত পৌনে ১০টায় হাসপাতালে কর্তব্যরত সকল সেবিকাদের কিছু সময়, কর্ম বিরতি দেখা যায়৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here