যশোরে স্কুল শিক্ষার্থী অপহরণ পূর্বক মুক্তিপণ আদায়ের অভিযোগে গ্রেফতার-১

0
301

বিশেষ প্রতিনিধি : এক শিশু বালককে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি করার অভিযোগে র‌্যাব-৬ যশোর ক্যাম্পের সদস্যরা আজমল ফরাজী নামে এক অপহরণকারীকে গ্রেফতার করেছে। সে মাদারীপুর জেলার রাজৈর থানার বড় মেহের ৬ নং ওয়ার্ড মস্তাপুর বর্তমানে খুলনা কেএমপি রেলওয়ে নিউ কলোনী হাসপাতাল রোড বাসা নং পিই-২৫৪-ক বাড়ির আলী আহম্মেদ ফরাজীর ছেলে এ সময় অপহৃত শিশু বালক তুফান শেখ (১০) কে উদ্ধার করে। । র‌্যাব-৬ যশোর ক্যাম্পের একটি টিম মঙ্গলবার খুলনা রেলওয়ে নিউ কলোনী হাসপাতাল রোড আকরাম হোসেনের বাড়ির দক্ষিণ পাশ থেকে গ্রেফতার করে। এ ঘটনায় কোতয়ালি মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে আজমল ফরাজীকে আদালতে সোপর্দ করেছে।
যশোর শহরের চাঁচড়া রায়পাড়ার মৃত আব্দুল জলিল শেখের ছেলে আলম শেখ বৃহস্পতিবার রাতে কোতয়ালি মডেল থানায় দায়েরকৃত এজাহারে বলেছেন, তার ছেলে তুফান শেখ চাঁচড়া রায়পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেনীর ছাত্র। গত ১০ ফেব্রুয়ারী সকালে সে বাড়ি হতে প্রাইভেট পড়তে বাড়ি হতে বের হয়। ওই দিন সে বাড়িতে না ফেরায় বিভিন্ন স্থানে খোজাখুঁজির এক পর্যায় না পেয়ে পরেরদিন তার মাতা একটি সাধারণ ডাইরী করেন। পরবর্তীতে ২৩ ফেব্রুয়ারী বেলা ১১ টায় অজ্ঞাতনামা ব্যক্তির নাম্বার থেকে শিশু বালকের মায়ের নাম্বারে ফোন করে তার ছেলে তুফান তাদের হেফাজতে রয়েছে। ছেলেকে পেতে হলে বিকাশের মাধ্যমে তাকে ৩ হাজার টাক দিতে হবে বলে জানান। উক্ত ব্যক্তির কথা মতো ছেলেকে ফিরে পাওয়ার জন্য প্রথম দফায় ৩হাজার ৬০ হাজার টাকা উক্ত নাম্বারের বিকাশে প্রদান করেন। পরবর্তীতে আরো ২৫শ’ টাকা বিকাশে প্রদান করেন। তারপর ও তুফানকে ফিরে না পাওয়ায় র‌্যাব-৬ যশোর ক্যাম্পের প্রধানের সাথে যোগাযোগ করলে র‌্যাবের একটি টিম উক্ত মোবাইল নাম্বারের খোঁজে আজমল ফরাজীকে খুলনা থেকে গ্রেফতার করে। এ সময় তার কাছে থাকা শিশু বালক তুফানকে উদ্ধার করে। এ ঘটনায় কোতয়ালি মডেল থানায় আলম শেখসহ অজ্ঞাতনামা উল্লেখ করে মামলা দায়ের করা হলে বৃহস্পতিবার দুপুরে আজমল ফরাজীকে আদালতে সোপর্দ করে।