যশোর উপশহরে যুবলীগ নেতা কাজল হত্যাকান্ডের ঘটনায় মামলা আদালতে দু’সহযোগীর স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি

0
216

বিশেষ প্রতিনিধি ; যশোর উপশহরে যুবলীগ নেতা এনামুল ইসলাম কাজল (৩৫) হত্যার ঘটনায় তিনজনকে আসামী করে কোতয়ালি মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এদিকে হত্যাকান্ডের পর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ হেফাজতে থাকা হত্যাকান্ডের প্রত্যক্ষদর্শী কাজলের দুই সহযোগী কসাই ইকবাল ও বিল্লাল ১৬৪ ধারা মোতাবেক বিজ্ঞ জুডিশিয়াল আদালতের বিজ্ঞ বিচারকের সামনে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি প্রদান করেছেন।

এদিকে,সোমবার সকালে নিহত কাজলের ছোট ভাই ইয়ানুর ইসলাম সজল বাদি হয়ে কোতয়ালি থানায় মামলা করেন । মামলা নাম্বার ১৫১। ধারা ৩০২/৩৪ পিসি। তারিখঃ ২২.০৫.১৭। মামলায় তিনজনকে আসামি করা হয়েছে। আসামিরা হচ্ছে উপশহর ডি ১২০ নং বাড়ির মনির উদ্দিন শেখ মনিরের ছেলে হাবিবুর রহমান টমাস, উপশহর এ ৩২৮ নং বাড়ির ভাড়াটিয়া নাসিম উদ্দিনের ছেলে রনি, খুলনা রুপসা থানার নৈহাটি গ্রামের নাজমুল শেখের ছেলে মামুন শেখ। বর্তমানে সদর উপজেলার বিরামপুর ভাটাপাড়ার নিজাম মৌলবীর বাড়ির ভাড়াটিয়া। আসামি টমাস ও রনির বিরুদ্ধে ঘোপ জেল রোডের শামিম ওরফে ভোতা শামিম হত্যা মামলা রয়েছে। উপশহর গোলমার্কেট এলাকায় শামিমকে হত্যা করা হয়েছিল। সম্প্রতি উচ্চ আদালত থেকে তারা জামিনে ছাড়া পায়। মামুনের নামে একটি হত্যা মামলা রয়েছে। উপশহর বি ব্লক বাজারে আরজানের চায়ের দোকানের সামনে ঘোপ এলাকার জনৈক যুবককে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে মামুন। তবে আসামিদের কাউকেই পুলিশ আটক করতে পারেনি।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, প্রতিদিনের মতো উপশহর ডি ব্লকের জনৈক নান্নুর কাঠ গোলা হতে কাজলের সঙ্গীয় উপশহর ট্রাক স্ট্যান্ড বস্তির মৃত আওয়ালের ছেলে ইকবাল, সদর উপজেলার তালবাড়িয়ার মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে রফিকুল ইসলাম বিল্লাল। বর্তমানে উপশহর এ ব্লক সব্যুলার মোড়ের পাশে ভাড়া থাকে। এদের সাথে মোটরসাইকেলে করে রওনা হয়। বেলা ২টা ৫ মিনিটের সময় উপশহর ইউনিয়ন পরিষদের সামনে স্প্রিড ব্রেকারের উপর পৌছালে এজাহার ভুক্ত আসামিরা পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মোটরসাইকেলের উপর বসা অবস্থায় কাজলের শরীরের বিভিন্ন স্থানে উর্পুযুপুরি ছুরিকাঘাত করে। কাজলের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে গেলে আসামিরা পালিয়ে যায়। আহত অবস্থায় কাজলকে হাসপাতালে নেওয়া হলে জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত ডাক্তার আব্দুর রশিদ মৃত ঘোষনা করেন। এদিকে কাজলের দুই সহযোগি হত্যাকান্ডের প্রত্যক্ষদর্শী ইকবাল ও বিল্লালের কাছ থেকে ১৬৪ ধারার জবান বন্দি নেওয়ার জন্য সোমবার দুপুরে দুজনকে যশোর কোতয়ালি আমলী আদালতের ক অঞ্চলের জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয় বলে জানান মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা উপশহর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এস আই আব্দুর রহিম। উল্রেখ্য রোবাবার ২১ মে দুপুরে উপশহর ইউনিয়ন পরিষদের সামনে একই দলের প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীরা যুবলীগকর্মী কাজলকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে। ওই দিন এশাবাদ বি ব্লক জামে মসজিদে জানাজা শেষে ঘোপ কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here