যশোর ট্যাক্সেস বার অ্যাসোসিয়েশনের নেতৃত্বে মোয়াজ্জেম-সবুজ

0
144

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোর ট্যাক্সেস বার অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাচনে মোয়াজ্জেম হোসেন চৌধুরী সভাপতি ও বিএম আলমগীর সিদ্দিকী সবুজ সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচনে ১৫ পদের মধ্যে অশোক কুমার-আলমগীর সবুজ পরিষদের ৬ জন ও মোয়াজ্জেম-প্রশান্ত পরিষদে ৭ জন নির্বাচিত হয়েছেন।

সভাপতি পদে মোয়াজ্জেম পেয়েছেন ৪৯ ভোট ও তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী অশোক কুমার দাস পেয়েছেন ৩৯ ভোট। সাধারণ সম্পাদক পদে সবুজ ৪৮ ভোট ও তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রশান্ত দেবনাথ পেয়েছেন ৩২ ভোট। এ পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী এম আরিফুর রহমান রিমু পেয়েছেন ৫ ভোট।

নির্বাচনে সহসভাপতির দু’টি পদে আলতাফ হোসেন ৪৭ ভোট ও গোপিনাথ রায় চৌধুরী ৪৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। পরাজিত প্রার্থী কাজী সাদাত হাসান শাহরিয়ার ও আল ইসলাম দুজনেই ৩৬টি করে ভোট পেয়েছেন। সহ সম্পাদক-১ পদে ইফতেখার আলম রিপন ও আজগর আলী খান দুজনেই ৪২টি করে ভোট পেয়েছেন। সমান সংখ্যক ভোট পাওয়ায় এ পদে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়নি।

সহসম্পাদক-২ পদে আমিরুল ইসলাম তন্ময় ৪১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। এ পদের অপর দুই প্রার্থী শ্যামল কুমার মজুরদার ৩৮ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল হালিম পেয়েছেন ৬ ভোট।

কোষাধ্যক্ষ পদে চিরন্তন মল্লিক ৪৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আফরোজা বেগম পেয়েছেন ৩৯ ভোট।

সদস্যের ৮টি পদে শেখ গোলাম রসুল ৫০, বোরহান উদ্দিন সিদ্দিকি ৪৯, শাহাজান আলী বিশ্বাস ৪৮, বোরহান উদ্দীন জাকির ৪৮, গোলাম কুদ্দুস ৪৬, শফিকুল ইসলাম ৪৬, আবুল কালাম ৪২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া সদস্য পদে ৪১ ভোট পেয়ে ইসতিয়াক আহম্মেদ, জাহিদুর রহমান জুয়েল ও অখিল উদ্দিন জয়ের দারপ্রান্তে রয়েছেন। এ তিনজনের মধ্যে একজন সদস্য পদে নির্বাচিত হবেন।

সদস্য পদে পরাজিত প্রার্থী মনিরুল ইসলাম মুন ৪০, ঘোষ সুজিত কুমার ৩৯, সাজেদুর রহমান শান্ত ও মিল্টন মন্ডল ৩৫ ও অসীম কুমার ঘোষ ৩২ ভোট পেয়েছেন।

নির্বাচন কমিশনার শাহরিয়ার আলম বলেন, নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হয়েছে। সহ সম্পাদক-১ ও সদস্য এই দুইপদে প্রার্থীদের একই ভোট পাওয়ায় কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। বৃহস্পতিবার এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

এদিকে, ৩১ বছর পর নির্বাচন হওয়ায় সদস্যরা উৎসহ ও উদ্দিপনার মধ্যদিয়ে ভোট প্রদান করেন। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে উৎসবমুখর হয়ে উঠে যশোর ট্যাক্সেস বার অ্যাসোসিয়েশন কার্যালয়। আনন্দঘন এ মহূর্তে জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্যরাও উপস্থিত হয়ে নির্বাচনে বাড়তি আমেজ তৈরি করেন।

১৫ পদের বিপরীতে দু’টি প্যানেলে ৩০ জন ও স্বতন্ত্র দু’জনসহ সর্বমোট ৩২ জন প্রার্থী নির্বাচনে অংশ নেন। তাদের মধ্যে ১৩ পদে ফলাফল ঘোষণা করা হয়।

বাকি দুইপদে আজ ফলাফল ঘোষনা করা হবে।