যশোর নার্সিং ইনষ্টিটিউটের বরখাস্তকৃত নার্সিং ইনষ্ট্রাক্টর ইনচার্জ সেলিনা ইয়াসমিনকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দিয়ে নির্দেশ প্রদান

0
307

এম আর রকি:যশোর নার্সিং ইনষ্টিটিউট নার্সিং ইনষ্ট্রাক্টর ইনচার্জ সেলিনা ইয়াসমিনকে ১০ কার্য দিবসের মধ্যে তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগনামা জবাব আকারে লিখিতভাবে প্রেরণ ও ব্যক্তিগত সাক্ষাতে কিছু বলতে চান কিনা বা এ বিভাগীয় মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থনে কোন সাক্ষ্য উপস্থাপন করতে চান কিনা তার বর্ণিত সময়ের মধ্যে জানানোর নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। গত মঙ্গলবার ২৭ আগষ্ট স্মারক নং ৪৫.০৩.০০০০.০০৭.২৭.০৭৬.১৯/৩৪১/২(১১) মোতাবেক নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তর ঢাকা পরিচালক প্রশাসন (যুগ্ম সচিব) শিরীনা দেলহুর স্বাক্ষরিত অভিযোগ নামায় এই নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।
অভিযোগ নামায় উল্লেখ করেন,মোসাঃ সেলিনা ইয়াসমিন (পিতা-কাজী নুরুল লতিফ),নার্সিং ইনষ্ট্রাক্টর ইনচার্জ (সাময়িক বরখাস্ত),নার্সিং ইনষ্টিটিউট, যশোর এর বিরুদ্ধে সরকারী কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপীল) বিধিমালা,২০১৮ অনুসারে আনীত অভিযোগনামা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় (স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগ) এর ০৮/০৫/২০১৯ তারিখের ৫৯.০০.০০০০.১৪৩.০৪.০১.২০১৮-১৯ সংখ্যক স্মারকে দূর্নীতি,অনিয়ম,অব্যবস্থাপনা ও অপকর্মের অভিযোগ প্রেরণ করা হয়। উক্ত অভিযোগ সমূহ তদন্তের জন্য ১৫/০৫/২০১৯ তারিখের ২১২ সংখ্যক স্মারকে গঠিত তদন্ত কমিটির ০৪/০৭/২০১৯ তারিখ দাখিলকৃত তদন্ত প্রতিবেদন অনুযায়ী মোসাঃ সেলিনা ইয়াসমিন কর্তৃক ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষে ডিপ্লোমা ইন নার্সিং সায়েন্স এন্ড মিডওয়াইফারি কোর্সে ০৩ জন প্রার্থীকে ও ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি কোর্সে ০১জন প্রার্থীকে অবৈধভাবে ভর্তি করানোর অভিযোগ সুস্পষ্টভাবে প্রমানিত হয়। উক্ত অনিয়ম সংগঠিত করার কারনে মোসাঃ সেলিনা ইয়াসমিন সরকারী বিধি ও স্বারক নং এফ,৩২/৪৮-ইএস (এস ই),তারিখ ২১ জুলাই ১৯৪৯ ধারা (গ) অনুযায়ী সরকারী কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপীল) বিধিমালা,২০১৮ এর বিধি-৩(খ) ও ৩(ঘ) এর বিধি-১২ মোতাবেক সরকারী চাকুরী থেকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়। সেলিনা ইয়াসমিন কর্তৃক এহেনভাবে ২০১৮-২০১৯ শিক্ষা বর্ষে ডিপ্লোম ইন নার্সিং সায়েন্স এন্ড মিডওয়াইফারি কোর্সে ০৩ জন প্রার্থীকে ও ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারি কোর্সে ০১ জন প্রার্থীকে অবৈধভাবে ভর্তি করা সরকারী কর্মচবারী (শৃঙ্খলা ও আপীল) বিধিমালা,২০১৮ এ বিধি-৩ (খ) ও ৩(ঘ) ধারা মোতাবেক সেলিনা ইয়াসমিনের অসদাচরন ও দূর্ণীতির আওতাভূক্ত অপরাধ।
অভিযুক্ত করায় কেন একই বিধিমালা ৪(৩) (ঘ) ধারা মোতাবেক সরকারী চাকুরী হতে আপনাকে বরখাস্ত করা হবে না বা উক্ত অধ্যাদেশের আওতায় অন্য কোন যাথোপযুক্ত শাস্তি প্রদান করা হবে না এ বিধির ৭(খ) ধারা মোতাবেক এ অভিযোগনামা পাওয়ার ১০ কার্য দিবসের মধ্যে লিখিত জবাব প্রেরণ করার নির্দেশ প্র্রদান করা হলো। যশোর নার্সিং ইনষ্টিটিউট সূত্রে জানাগেছে,গত ২১ জুলাই থেকে সেলিনা ইয়াসমিন সাময়িক বরখাস্ত হলেও তিনি নতুন ইনচার্জ চায়না খাঁকে দায়িত্ব বুঝে দেন নি। তিনি ইনচার্জের কক্ষ তালা মেরে ইচ্ছা মাফিক আসছে আবার যাচ্ছে। এ নিয়ে নার্সিং ইনষ্টিটিউট প্রাঙ্গনে নানা গুঞ্জন সৃষ্টি হয়েছে। চরম অব্যবস্থাপনা সৃষ্টি হচ্ছে এখানে।#

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here