যশোর বড় বাজারে নকল ও নিন্মমানের রং বিক্রির প্রতিবাদ করায় ব্যবসায়ীকে হুমকীর ঘটনায় থানায় সাধারণ ডাইরী

0
78

নিজস্ব প্রতিবেদক : নকল ও নিন্মমানে মাল বিক্রির প্রতিবাদ জানাতে গিয়ে যশোর শহরের বড় বাজার ভূজাপট্টি সঞ্জয় ষ্টোরের মালিক সঞ্জয় কুমার সাহাকে প্রাণনাশের হুমকী দিয়েছে অসাধূ ব্যবসায়ী ভরত। শুধু প্রাণ নাশের হুমকী নয় তার পাশাপাশি খুন জখমসহ মিথ্যা মামলা করাসহ বড় ধরনের ক্ষতি করার আশংকা প্রকাশ করেছেন সঞ্জয় কুমার সাহা। তিনি ভয়ে জীবন আশংকার জন্য কোতয়ালি মডেল থানায় নকল ও অসাধু ব্যবসায়ী ভরতের বিরুদ্ধে সাধারণ ডাইরী করেছে। কোতয়ালি মডেল থানার সাধারণ ডাইরী নং ১৪১৯ তারিখঃ ২২/০৩/২১ ইং।
সঞ্জয় কুমার সাহা তার সাধারণ ডাইরীতে বলেছেন, ভরত যশোর শহরের বেজপাড়া মেইন রোড প্রিন্স এর বাড়িতে ভাড়াটিয়া ও শহরের হাটখোলা রোড যশোর ট্রেডিং এর প্রোপ্রাইটর। সঞ্জল কুমার সাহা ভরতের যশোর ট্রেডিং দোকান হতে মুদি মনোহরীসহ যাবতীয় নির্মাণ সামগ্রী যথা পেইন্ট বা রং ক্রয় করে থাকেন। গত ৮ মার্চ বিকেল সাড়ে ৪ টায় ভরতের দোকান হতে নগদ ৫৭ হাজার টাকা মূল্যে বিভিন্ন ব্রান্ডের রং তথা পেইন্ট ক্রয় করে। পরে উক্ত ক্রয় করা পেইন্ট ক্রেতা রাব্বি ও সুবলের নিকট বিক্রি করে। গত ২০ মার্চ দুপুর দেড়টায় ক্রেতা দু’জন এসে সঞ্জয় ষ্টোরে এসে জানায় রং তথা পেইন্ট ভাল না। নিম্মমানের ও নকল বলে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সঞ্জল কুমার সাহা কেন নকল ও নিম্মমানের দেওয়া হয়েছে ভরতের দোকানে গিয়ে জানতে চান। ২১ মার্চ দুপুর আড়াইটার সময় ভরতের দোকানে দিয়ে নকল ও নিন্মমানের কথা বললে ভরত সঞ্জয় কুমার সাহাকে রাব্বি ও সুবলের সামনে খারাপ আচারণ ও গালিগালাজ শুরু করে। গালি গালাজ করতে নিষেধ করলে তর্ক বিতর্কের এক পর্যায় সঞ্জয় সুমার সাহাকে ভরত খুন জখমের হুমকী দেয়। এ সময় সঞ্জয় কুমার সাহাকে এলোপাতাড়ী ভাবে মারপিট শুরু করে। সঞ্জয় কুমার সাহার ডাক চিৎকারে বিভিন্ন লোকজন এগিয়ে এসে ভরতের আক্রমনের হাত থেকে রক্ষা করে। বর্তমানে সঞ্জয় কুমার সাহা ভরতের আক্রমের হাত থেকে রক্ষার জন্য কোতয়ালি মডেল থানায় আশ্রয় নিয়ে সাধারণ ডাইরী করেছেন।#