যশোর বড় বাজার এলাকায় পরিবেশ বিনষ্ট করতে পলিথিন ব্যবসা এক মাত্র কারণ চিহ্নিত

0
460

ব্যবসার হোতা গৌরাঙ্গ পাল এখনও ধরা ছোয়ার বাইরে
এম আর রকি : যশোর শহরের বড় বাজার এলাকায় পরিবেশের জন্য হুমকী পলিথিন ব্যবসার হোতা গৌরাঙ্গ পাল ওরফে বাবু পালের বিরুদ্ধে বেরিয়ে এসেছে নানা অভিযোগ। গৌরাঙ্গ পাল সরকারের সিদ্ধান্তকে উপেক্ষা করে পরিবেশকে হুমকীর মুখে ফেলার জন্য পলিথিনের ব্যবসা অব্যাহত ভাবে চালিয়ে যাচ্ছে বলে খবর পাওয়া গেছে।
বাজারের বিভিন্ন ব্যবসায়ী নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান,শহরের বড় বাজার এলাকার পলিথিন ব্যবসায়ীর প্রধান হোতা গৌরাঙ্গ পাল যশোর বড় বাজার ছাড়াও যশোরের বিভিন্ন উপজেলা গুলিতে তার মজুতকৃত পলিথিন গোডাউন থেকে রাতের আঁধারে সরবরাহ করে থাকে। গৌরাঙ্গ পাল ওরফে বাবু পাল সরকার নিধিদ্ধ পলিথিনের বড় চালান রাতের আধারে যশোর শহরের তার ভাড়া করা গোডাউনে তোলে। উক্ত পলিথিন সেখান থেকে অতি সর্তকতার মাধ্যমে যশোর শহরের বড় বাজার এলাকার প্রায় কয়েক হাজার দোকান গুলিতে সরবরাহ করে থাকে। সূত্রগুলো জানিয়েছেন,বড় বাজার এলাকার হাটখোলা,রোড,গোহাটা,হাটচান্নিসহ অলি গলিতে গড়ে ওঠা বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে গৌরাঙ্গ পাল ওরফে বাবু পাল সরকার নিষিদ্ধ পলিথিন সরবরাহ করে থাকেন। সূত্রটি জানিয়েছেন, বাবু পাল প্রতিদিন কমপক্ষে লাখ টাকার পলিথিন সরবরাহ করে থাকেন। তার সরকার নিষিদ্ধ পলিথিন ব্যবসা সচল রাখতে সে যশোর সদর পুলিশ ফাঁড়ির এক কর্তার সাথে মাসিক সামান্য চুক্তি রেখেছে। তাছাড়া, সে এই ব্যবসা প্রসারিত করার জন্য নিজেই যশোরের একটি পত্রিকার কর্মকর্তার দায়িত্ব পালনের পরিচয় পত্র বানিয়েছেন। সে পুলিশী ঝামেলায় পড়লে নিজেকে উক্ত পত্রিকার কর্তা হিসেবে মাঝে মধ্যে পরিচয় দেন।
সূত্রটি জানিয়েছেন, বাবু পাল পলিথিন ব্যবসার পাশাপাশি পুলিশের সোর্সের দায়িত্ব পালন করে থাকেন। পুলিশী ঝামেলার এড়ানোর জন্য সে কতিপয় পুলিশ কর্তাকে মাসে হাজার টাকা তুলে দেন। যার কারনে পুলিশ জেনেও বাবু পালকে গ্রেফতার করেন না। যশোর শহরের বড় বাজার ও তার আশপাশ এলাকার ব্যবসা কেন্দ্রে পলিথিন মুক্ত করতে হলে বাবু পালকে গ্রেফতার পূর্বক কারাগারে প্রেরণ ছাড়া আর কোন পথ নেই। সূত্রগুলো জানিয়েছে,বাবু পালের এক মাত্র ব্যবসা পলিথিন সরবরাহ করা। ইতিপূর্বে পলিথিন রাখার অপরাধে ভ্রাম্যমান আদালতের মুখোমুখী হয়ে অনেক ক্ষুত্র ব্যবসায়ী জরিমানা দিয়েছেন। বাবু পাল বরা বরই থেকে গেছে ধরা ছোয়ার বাইরে। যশোর বড় বাজার এলাকার পরিবেশ পলিথিনের কারনে হুমকী মুখে থেকেই যাচ্ছে বলে সূত্রগুলো জানিয়েছেন। বাজারের ব্যবসায়ীরা বাবু পালসহ তার এই অবৈধ ব্যবসার সহযোগীদের অতি সত্বর গ্রেফতার পূর্বক পরিবেশকে রক্ষার জন্য উধ্বর্তন কতৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here