যশোর শহরের বারান্দীপাড়া কদমতলায় গৃহবধূ হত্যা স্বীকার করে স্বামীর আদালতে জবানবন্দি

0
312

বিশেষ প্রতিনিধি : যশোর শহরের বারান্দীপাড়া কদমতলায় এক সন্তানের জননী গৃহবধূ লিনা খাতুন (৩৫) হত্যা মামলায় এজাহার নামীয় আসামী স্বামী টগর হোসেন শুক্রবার ১২ জুন যশোর জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ২য় আদালত সাইফুদ্দিন হোসাইনের আদালতে স্ত্রীর হত্যার দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি প্রদান করেছেন। টগর হোসেন শহরের বারান্দীপাড়া কদমতলার মৃত মাসুদ আলী খানের ছেলে। সদর উপজেলার নীমতলী গ্রামের মৃত আকবার ডাক্তারের ছেলে মোশারফ হোসেন বাদি হয়ে গত ৩১ মে কোতয়ালি মডেল থানায় তার মেয়ে লিনা খাতুনকে ৩লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে গত ২৫ মে সন্ধ্যায় নির্যাতন করে হত্যার অভিযোগ করে। উক্ত অভিযোগে জামাতা টগর হোসেন ছাড়াও তার দুই ভাই খোকন, সাজু ও মামুন খান বাবুকে আসামী করে গৃহবধূর পিতা। বৃহস্পতিবার রাতে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই শরিফুল ইসলাম টগন হোসেনকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতার হওয়ার পর টগর হোসেন পুলিশের কাছে স্বীকার করে তাদের মধ্যে সাংসারিক কলহের এক পর্যায় ঘটনার দিনে ধাক্কা দিয়ে লিনা খাতুনের মাথায় আঘাত লেগে সে আহত হয়। এর পর লিনা খাতুনকে তার পিতা উদ্ধার করে খুলনার একটি বেসরকারি হাসপাতাল পরে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে সেখানে লিনা খাতুন মারা যায়। কোতয়ালি মডেল থানার মামলা নং ৭১ তারিখঃ ৩১/০৫/২০ ইং।#