যশোর শার্শা উপজেলার এক ছাত্রলীগ নেতা পরিচয়দানকারী যুবকের লালসার শিকারেমাদ্রাসা ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা

0
210

বিশেষ প্রতিনিধি: যশোর শার্শা উপজেলার একটি গ্রামে ছাত্রলীগ নেতা পরিচয়দানকারী ইমামুল নামে এক তরুণের লালসার শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ করছে এক মাদরাসার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে উঠেপড়ে লেগেছে একটি প্রভাবশালী মহল। অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়া ছাত্রী এখন নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে বলেও অভিযোগ।
এলাকার মানুষের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সাতক্ষীরা থেকে আসা এক ব্যক্তি দীর্ঘ দিন ধরে শার্শা উপজেলার ডিহি ইউনিয়নের ওই গ্রামে জাহাঙ্গীর মাস্টারের ছেলে সবুরের জায়গায় ঘর তৈরি করে বসবাস করে আসছেন। সম্প্রতি তার মাদরাসা পড়ুয়া মেয়ের দিকে নজর পড়ে একই গ্রামের বারিক মেম্বরের ছেলে ইমামুলের। সে নিজেকে ছাত্রলীগের দাপুটে নেতা পরিচয় দিয়ে ওই মাদরাসাছাত্রীর সঙ্গে প্রেমজ সম্পর্ক গড়ে। ঘর বাঁধার স্বপ্ন দেখিয়ে মেয়েটিকে দিনের পর দিন ভোগ করে ইমামুল। ওই ছাত্রীকে সম্প্রতি নাভারণের একটি বেসরকারি ক্লিনিকে এনে শারীরিক পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষায় জানা যায়, সে তিন মাসের অন্তঃসত্ত্বা। এসময় ইমামুলের কাছে ছাত্রী তার গর্ভের সন্তানের পিতৃপরিচয়ের দাবি জানায়। গ্রামবাসী বলছেন, এ ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে ইমামুল ও তার পরিবার। ওই ছাত্রীর পরিবারকে এলাকাছাড়া করা এবং তাকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিতে থাকে।অভিযোগ উঠেছে, জমির মালিক সবুর অভিযুক্ত ইমামুলের পক্ষ নিয়ে এক লাখ টাকায় ঘটনা রফা করার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে। এ অবস্থায় ছাত্রীর পরিবার এখন গৃহবন্দি হয়ে পড়েছে।এ ব্যাপারে ছাত্রীর বাবার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও তিনি ভয়ে কথা বলতে চাননি।ইমামুলের বাবা বারিক মেম্বরের কাছে জানতে চাইলে তিনি প্রতিবেদককে শাসিয়ে বলেন, আমি এক লাখ টাকা না, পাঁচ লাখ টাকার বিনিময়ে ঘটনাটি মিটিয়ে ফেলেছি। তাতে আপনার সমস্যা কী?’শার্শার গোড়পাড়া পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই জাফর বলেন, আমি খোঁজ-খবর নিয়ে পরে জানাবো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here