যশোর সাহিত্য পরিষদ কার্যালয় রক্ষার দাবি ৩৬ সাংস্কৃতিক সংগঠনের

0
134

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোর সাহিত্য পরিষদ কার্যালয়টি রক্ষার দাবিতে ৩৬টি সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দের একসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সুরধুনী সঙ্গীত নিকেতনের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তরিকুল ইসলাম তারু। এসময় নেতৃবৃন্দ বলেন, দীর্ঘ প্রায় ৩৮ বছর ধরে যশোর সাহিত্য পরিষদ দেশের সাহিত্য সংস্কৃতি উন্নয়নে কাজ করছে। ১৯৮৩ সালে জেলা পরিষদ এবং এ জেলার সাহিত্যানুরাগী ব্যক্তিদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় কবি আজীজুল হকের নেতৃত্বে সাহিত্য পরিষদের কার্যক্রম শুরু হয়। সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিকাশে জেলা পরিষদ শহরের মুজিব সড়কে একটি কক্ষ তৈরি করে যশোর সাহিত্য পরিষদকে মাসিক ভাড়ায় বরাদ্দ দেয়। ১৯৯২ সালে যশোর জেলা পরিষদের কর্মকর্তাদের নির্দেশে ওই ভবনের দোতলায় যশোর সাহিত্য  পরিষদের কার্যালয়  স্থানান্তর হলে অদ্যবধি সেখান থেকে সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছিলো। নেতৃবৃন্দ বলেন, বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টায় আকষ্মিক বুলডোজার দিয়ে রাস্তা প্রশস্ত করার কথা বলে বিনা নোটিশে সাহিত্য পরিষদ কার্যালয়ের একটি অংশ ভেঙে ফেলা হয়। এর ফলে যশোর সাহিত্য পরিষদ কার্যত উদ্বাস্তু হয়ে পড়ে। সভায় নেতৃবৃন্দ সময় এবং বিকল্প ব্যবস্থা না করে যশোর সাহিত্য পরিষদকে রাস্তায় দাঁড় করানোর জন্যে তীব্র প্রতিবাদ এবং অবিলম্বে একই স্থানে যশোর সাহিত্য পরিষদ কার্যালয় স্থাপনের সহযোগিতার জন্যে কর্তৃপক্ষের প্রতি আহবান জানান। সংস্কৃতি জন হারুন অর রশিদ, সুকুমার দাস, অ্যাড. মাহামুদ হাসান বুলু, দীপংকর দাস রতন, অ্যাড.বাসুদেব বিশ্বাস,সাজ্জাদুর রহমান বিপ্লব, অধ্যক্ষ শাহীন ইকবাল, কাজী মাজেদ নওয়াজ, সাজ্জাদ গনি খান রিমন, মাহাফুজুর রহমান, সাংবাদিক মনিরুল ইসলাম, শামিমা ইয়াসমিন শম্পা প্রমুখ।