রাজগঞ্জের মিনা পারভীন কৃষি কাজে কৃষক ও কৃষেনদের সঠিক পরামর্শ দানে ব্যপক সফলতা অর্জন

0
500

উত্তম চক্রবর্ত্তী : কৃষি ক্ষেত্রে নারী উদ্যক্তা হিসাবে মিনা পারভীন কঠোর ভুমিকা নিয়ে কাজ করে চলেছেন। যার কারনে কৃষি বিভাগ তাকে নানান ভাবে ভুষিত করেছেন। মণিরামপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার সার্বিক সহযোগিতায় বীজ, সার ও বালাই নাশক সম্পর্কে নিজ ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান রাজগঞ্জ বাজারের শান্তা এন্টার প্রাইজ এ আগত সকল কৃষকের নানান পরামর্শ দেন তিনি । সাথে সাথে মিনা পারভীন গ্রামাঞ্চলের মাঠে বিভিন্ন ফসলের ক্ষেতের বিভিন্ন প্রকার রোগ নির্নয় করে সেই অনুপাতে বালাই নাশক প্রয়োগ সম্পর্কে কৃষকদের সঠিক পরামর্শ দিয়ে থাকেন। গত এক বছর ধরে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রাজগঞ্জে নিজ হাতে গুটি ইউরিয়া তৈরী করে উপজেলা কৃষি বিভাগের কাছে অধিক সুনাম অর্জন করেছেন। শুধু এই নয় নারীদের কৃষি ক্ষেত্রে ঝুকে আনতে নারী কৃষেনদের দিয়ে গুটি ইউরিয়া মাঠের ধান ক্ষেতে রোপন করাই তার বিশেষ অবদান রয়েছে। উপজেলার অনেক গুলি গ্রামে নারী কৃষেনদের দিয়ে এই নারী উদ্যক্তা মিনা পারভীন গুটি ইউরিয়া ধান ক্ষেতে রোপন করেছেন। এর মধ্যে খালিয়া, হেলাঞ্চী ও মোনাহরপুর গ্রামে নারী কৃষেনরা গুটি ইউরিয়া রোপনে বিশেষ ভুমিকা রেখেছেন। এই নারী উদ্ধক্তা মিনা উপ-সহকারী কৃষিকর্মর্তাদের সহযোগিতায় বিভিন্ন গ্রামে যেয়ে পুরুষ ও নারী কৃষেনদের নিয়ে উঠান বৈঠাকের মাঝে সার, বীজ ও বালাই নাশক সম্পর্কে সঠিক পরামর্শ দেন। যার কারনে সকল কৃষকের কাছে যেমন অধিক পরিচিতি রয়েছে, তেমনি কৃষি ক্ষেত্রে নানান অবদান রাখায় কৃষি বিভাগে রয়েছে অনেক সুনাম। যার কারনে তিনি কৃষি বিভাগ থেকে বিভিন্ন সময় কৃষি সরজ্ঞামাদী ও কৃষি উপকরন পেয়ে থাকেন। একজন নারী হয়ে যশোরের মণিরামপুর উপজেলার রাজগঞ্জ বাজারে প্রায় এক যুগ ধরে সার, বীজ ও কীটনাশক দমনের জন্য বালাই নাশক বিক্রি করে আসছে। এরই মাঝে কৃষি কর্মকর্তাদের সহযোগিতায় এলাকার কৃষকদের কৃষি ক্ষেত্রে সব সময় সঠিক পরামর্শ দিয়ে যান। কৃষকরা নারী উদ্ধক্তা মিনা পারভীনের পরামর্শে ফসল উৎপাদনে অধিক লাভবান হয়েছেন। তিনি শুধু পুরুষদের নয় সাথে সাথে নারী কৃষেনদের কৃষি কাজে লাগিয়েছেন। যার কারনে কৃষি ক্ষেত্রে মিনা পারভীনকে মণিরামপুরের কৃষি কর্মকর্তা সফল নারী উদ্যক্তা হিসাবে আখ্যায়িত করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here